পুলিশের হাতে ছেলে আটকের খবরে মায়ের মৃত্যু

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে অভিযোগ ছাড়া ছেলেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে এমন খবরে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মা কাজল রেখা (৬০) মারা গেছেন । শনিবার রাতে উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার কেন্দুয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার সাথে জড়িত অভিযোগে দুই এসআইকে ক্লোজ করা হয়েছে।
রবিবার সন্ধ্যায় ভোলাবো তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সেপেক্টর শহীদুল ইসলাম জানিয়েছেন, অভিযোগের সত্যতা পেয়ে রূপগঞ্জের ভোলাবো তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রুহুল আমিন ও ছাব্বির আহমেদকে ক্লোজ করে জেলা পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়েছে।
পুলিশের হয়রানির শিকার ব্যবসায়ী তুহিন জানান, শনিবার রাতে কেন্দুয়া পন্ড গার্ডেনের সামনে বাবুলের দোকানে বসে চা পান করছিলেন তিনি। এসময় এসআই রুহুল আমিন ও ছাব্বির আহমেদ তার নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে দাবি করে তাকে মায়ারবাড়ি এলাকায় নিয়ে আসে। এসময় তুহিন দুই এসআইকে চ্যালেঞ্জ করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা দেখাতে বলেন। কিন্তু দুই এসআই কাগজ না দেখিয়ে তার কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা দাবি করেন। অন্যথায় অন্য মামলায় চালান করে দেওয়া হবে বলে ভয়ভীতি দেখায়।
খবর পেয়ে তুহিনের বড় ভাই রিপন স্থানীয় কাউন্সিলর জহিরুল ইসলাম ও আওয়ামী লীগ নেতা মাইনউদ্দিনকে সঙ্গে নিয়ে মায়ারবাড়ি এলাকার জমজম হোটেলে তুহিনকে ছেড়ে দিতে তিন হাজার টাকা দেয় দুই এসআইকে।
এদিকে ছেলেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে খবর পেয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হন মা কাজল রেখা। গুরুতর অবস্থায় স্থানীয় দায়েমউদ্দিন হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রাতেই বিষয়টি নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপারকে জানালে তিনি ঘটনার তদন্তের জন্য রূপগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর হককে নির্দেশ দেন। অভিযোগের সত্যতা পেয়ে জেলা পুলিশ দুই এসআইকে ক্লোজ করে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ লাইনসে পাঠায়।
এ ব্যাপারে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ইন্সপেক্টর সাজ্জাদ রোমান জানান, তুহিনকে বিনা কারনে আটকের অভিযোগের সত্যতা খুজে পাওয়ায় দুই এসআইসের বিরুদ্ধে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন পুলিশ সুপার।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *