পুত্রবধূকে বিয়ে করতে কাজি নিয়ে গেলেন শ্বশুর  

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক  

 নিজের পুত্রবধূকে বিয়ে করতে কাজি নিয়ে ছেলের শ্বশুরবাড়ি গেলেন বাবা। কিন্তু এতে আপত্তি তোলে থানা পুলিশকে খবর দেন পুত্রবধূ। একই সঙ্গে শ্বশুরের বিরুদ্ধে মামলাও করেন তিনি।  

 

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে। পরে পুত্রবধূর দায়ের করা মামলায় শ্বশুরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে শ্বশুর নুরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত নুরুল ইসলাম (৫৫) উজিরপুর উপজেলার রাজাপুর গ্রামের ৪নং ওয়ার্ডের মৃত দলিল উদ্দিন বেপারীর ছেলে।  

 

বিষয়টি নিশ্চিত করে আগৈলঝাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আফজাল হোসেন বলেন, আগৈলঝাড়া উপজেলার পশ্চিম খাজুরিয়া গ্রামের এক মেয়ের (২১) সঙ্গে নুরুল ইসলামের বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ছেলে সোহাগ বেপারীর সাত মাস আগে বিয়ে হয়।  

 

সোমবার পুত্রবধূর বাবার বাড়িতে বেড়াতে আসেন শ্বশুর নুরুল ইসলাম। ওইদিনই পুত্রবধূকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে কাজি নিয়ে আসার কথা বলেন শ্বশুর। কিন্তু শ্বশুরকে বিয়ে করতে আপত্তি জানান পুত্রবধূ। বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ওইদিন রাত ৮টার দিকে পুত্রবধূকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালান শ্বশুর নুরুল ইসলাম।  

 

মঙ্গলবার সকালে বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়। পরে পুত্রবধূ বাদী হয়ে শ্বশুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেন। ওই মামলায় শ্বশুর নুরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ।  

 

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. ইউনুস মিয়া বলেন, বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ছেলে সোহাগকে তালাক দিয়ে গৃহবধূকে বিয়ের প্রস্তাব দেন শ্বশুর নুরুল ইসলাম। একই সঙ্গে পুত্রবধূকে বিয়ে করতে স্থানীয় কাজি নূর হোসেনকে ডেকে আনেন নুরুল ইসলাম।  

 

তবে কাজি নূর হোসেন বিষয়টি জেনে গৃহবধূর সঙ্গে কথা বলেন। সেই সঙ্গে শ্বশুরের সঙ্গে পুত্রবধূর বিয়ে পড়াতে অস্বীকৃতি জানান কাজি নূর। এরই মধ্যে দুপুরে নূরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।  

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.