‘পারমাণবিক যুদ্ধে কেউ জিতবে না’

পারমাণবিক অস্ত্রের আরও বিস্তার রোধ এবং পারমাণবিক যুদ্ধ এড়ানোর পক্ষে মত দিয়েছে বিশ্বের শীর্ষ পরমাণু শক্তিধর দেশগুলো। এই দেশগুলো হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, চীন, রাশিয়া ও ফ্রান্স। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

সোমবার রুশ প্রেসিডেন্টের দফতর ক্রেমলিন কর্তৃক পাঁচ দেশের এক যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। ওই বিবৃতিতে এমন মত দেওয়া হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্র পারমাণবিক শক্তিধর দেশগুলোর মধ্যে যুদ্ধ এড়ানো এবং কৌশলগত ঝুঁকি হ্রাস করাকে তাদের প্রাথমিক দায়িত্ব বলে মনে করে।

বিবৃতির রাশিয়ান ভাষার সংস্করণে বলা হয়েছে, ‘আমরা ঘোষণা করছি, পারমাণবিক যুদ্ধে কেউ বিজয়ী হতে পারে না। এটি কখনও শুরু করা উচিত নয়।’

এতে বলা হয়, ‘পারমাণবিক অস্ত্রের ব্যবহারের পরিণতি সুদূরপ্রসারী। তাই আমরা নিশ্চিত করছি যে, পারমাণবিক অস্ত্র যতদিন বিদ্যমান থাকবে; এটির লক্ষ্য হবে প্রতিরক্ষামূলক। যুদ্ধ প্রতিরোধ করা উচিত।’

ফ্রান্সও একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়, পাঁচ শক্তিধর দেশ পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ এবং নিরস্ত্রীকরণের জন্য তাদের সংকল্প পুনর্ব্যক্ত করেছে। পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে তারা দ্বিপাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক পন্থা অব্যাহত রাখবে।

প্রতিবেশী ইউক্রেনের সঙ্গে রাশিয়ার সাম্প্রতিক উত্তেজনার মধ্যেই নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্রের কাছ থেকে এমন বিবৃতি এলো।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.