পাইকগাছায় ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার ১

পাইকগাছা প্রতিনিধি
পাইকগাছা থানা পুলিশ এবার এক নারীর ধর্ষণ করার ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার আসামীকে গ্রেফতার করেছে। শুক্রবার রাতে নড়াইলের লোহগড়া এলাকা থেকে মোস্তাক মিস্ত্রী নামের ওই আসামীকে গ্রেফতার করা হয়।
থানা পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চেঁচুয়া গ্রামের জাবেদ আলী মিস্ত্রীর ছেলে জনি মিস্ত্রী পেশায় একজন গ্যারেজ মিস্ত্রী হওয়ায় বেশিরভাগ সময় বাড়ির বাইরে থাকে। এ সুযোগে প্রতিবেশী ফজলু মিস্ত্রীর ছেলে মোস্তাক মিস্ত্রী (২৪) জনির স্ত্রীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক করার প্রস্তাব দেয়। এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলে মোস্তাক ওই গৃহবধুর ক্ষতি করার হুমকি দেয়। এক পর্যায়ে ঘটনার দিন ১৮/০৪/২০২০ ইং তারিখ রাত দেড়টার দিকে মোস্তাক জনির বাড়ীতে যায় এবং বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে মোস্তাক জনির স্ত্রীকে ধর্ষণ করে এবং ধর্ষণের দৃশ্য গোপনে মোবাইলে ভিডিও করে। পরবর্তীতে ধর্ষণের ওই ভিডিও মোস্তাক এলাকার ছেলেদের নিকট এবং ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়। এ ঘটনার দেড়মাস পর ভিকটিম গৃহবধু বাদী হয়ে মোস্তাককে আসামী করে পাইকগাছা থানায় পর্ণগ্রাফী নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করে। যার নং- ১৩, তাং- ১০/০৬/২০২০ ইং। মামলারপর আসামী মোস্তাক এলাকা ছেড়ে অনত্র পালিয়ে যায়।
অবশেষে ওসি এজাজ শফীর নির্দেশনায় থানা পুলিশ মামলার ৪ মাস পর শুক্রবার রাতে নড়াইলের লোহগড়া এলাকা থেকে আসামী মোস্তাককে গ্রেফতার করে। গতকাল শনিবার সকালে গ্রেফতারকৃত আসামীকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে থানার ওসি জানিয়েছেন।

দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিন/ এম জে এফ

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *