পহেলা বৈশাখে বেড়াতে নিয়ে তরুণীকে গণধর্ষণ

 

 

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলায় গার্মেন্টসকর্মী এক তরুণীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে পয়লা বৈশাখে ঘুরতে নেয়ার নামে গণধর্ষণ করেছে তিন পাষণ্ড। রোববার সন্ধ্যার পর ১৭ বছরের ওই তরুণীকে উদ্ধারের পর চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গণধর্ষনের কারণে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে এই তরুণীর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত কথিত প্রেমিকের নাম রিপন (২৬)। সে একই কারখানার গাড়িচালক বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পটিয়া বিসিক শিল্প নগরীর একটি গার্মেন্টসে চাকরিরত তরুণীর সঙ্গে একই কারখানার গাড়ি চালক রিপনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এই প্রেমের সূত্র ধরে তরুণীকে পয়লা বৈশাখে ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে পটিয়ার একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে যায়। সেখানে রিপনসহ তার আরো ৩/৪ জন সহযোগী মিলে তরুণীকে গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা অজ্ঞান অবস্থায় এই তরুনীকে উদ্ধার করে প্রথমে পটিয়া স্বাস্থ্য কমপপ্লেক্স ও পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করে। তরুণীটি অজ্ঞান থাকায় এ ব্যাপারে এখনো বিস্তারিত জানতে পারেনি পুলিশ।

পটিয়া থানার ওসি (তদন্ত) হেলাল উদ্দিন ফারুকী জানিয়েছেন, গার্মেন্টসকর্মী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের প্রক্রিয়া চলছে।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক আমির হোসেন জানান, অজ্ঞান অবস্থায় তরুণীটিকে চট্টগ্রাম মেডিক্যালে নিয়ে আসে কয়েকজন যুবক। তাকে কিভাবে উদ্ধার করা হয়েছে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানা সম্ভব হয়নি। পুলিশ এ ঘটনা অনুসন্ধান করছে।

 

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.