February 21, 2024
জাতীয়

পদ্মাসেতু রেল প্রকল্পে স্থানীয়দের প্রতারণা ধরলো দুদক

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

পদ্মাসেতু রেল প্রকল্পে সরকারি অর্থ লোপাটে অভিনব প্রতারণার ফাঁদ পাতছে স্থানীয় বাসিন্দারা। এসব প্রতারণা ঠেকিয়ে সরকারি টাকার অপচয় রোধ করতে সরাসরি অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল মঙ্গলবার মাদারীপুরের শিবচরে এ অভিযান চালায় দুদকের ফরিদপুরের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের একটি দল।

দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বাংলানিউজকে জানান, ভূমি অধিগ্রহণের মূল্য বেশি দেখানোর উদ্দেশে মাদারীপুরের শিবচরে পদ্মাসেতু রেল প্রকল্প এলাকায় ফসলি জমিতে অবৈধ ঘরবাড়ি ও দোকানপাট গড়ে ওঠার অভিযোগ খতিয়ে দেখে দুদকের ফরিদপুরের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের একটি দল।

দুদক দল উপজেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। দল দেখে, ভূমি অধিগ্রহণের টাকা অধিক হারে আদায়ের প্রত্যাশায় ওই এলাকায় বেশকিছু টিনশেড স্থাপনা গড়ে উঠেছে। ভবনগুলো দেখতেও হাস্যকর। গাছের ক্ষতিপূরণ আদায়ে নার্সারির মতো ঘন করে গাছ লাগানো হয়েছে।

তড়িঘড়ি করে নির্মাণ করা ভবনের ফলে কেউ যেন সরকারি টাকার অপচয় না করতে পারে তা নিশ্চিত করার জন্য মাদারীপুরের ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তাকে দুদক দলের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়। এদিকে, ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির (ডিপিডিসি) জুরাইন কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে নানাবিধ অনিয়ম উদঘাটন করেছে দুদক।

দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে (হটলাইন-১০৬) অভিযোগ আসে, বৈদ্যুতিক মিটার সংযোগ, নবায়ন ও অন্যান্য সেবা প্রদানে গ্রাহকদের কাছ থেকে দালালরা টাকা নিচ্ছেন। এ কাজে সহায়তা করছেন ডিপিডিসির মিটার রিডাররা ও কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী। ওই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান কার্যালয়ের একটি দল আজ সরেজমিনে অভিযান পরিচালনা করে।

দুদক দল ওই দফতরে আসা বিভিন্ন আবেদনের নথি খতিয়ে দেখে এবং নথিতে লিপিবদ্ধ মোবাইল নম্বরের সঙ্গে গ্রাহকের নামের অমিল পায়। আবেদনগুলো দালালদের মাধ্যমে উপস্থাপিত হয়েছে মর্মে প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হয়। আবু সাঈদ নামে একজন মিটার রিডারের সঙ্গে দালালের যোগসাজশের প্রমাণ পায় দুদক দল। তাকে বরখাস্ত করার জন্য নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রুহুল আমিন ফকিরকে সুপারিশ করা হয়।

নির্বাহী প্রকৌশলী দুদক দলের উদঘাটিত সব অনিয়মের বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করে টিমকে অবহিত করার আশ্বস্ত করে। এছাড়াও দুদক দল দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন বকেয়া বিলের নথি সংগ্রহ করে। সব তথ্যাবলী সংগ্রহ করে কমিশনে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হবে।

 

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *