নির্ভয়াকাণ্ডে দণ্ডপ্রাপ্তদের ফাঁসিতে ঝোলানোর নির্দেশ

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

ভারতের নির্ভয়া ধর্ষণ ও হত্যা মামলার চার আসামির ফাঁসি কার্যকরের নির্দেশ দিয়েছেন দিল্লি কোর্ট। আগামী ২২ জানুয়ারি সকাল ৭টায় তাদের ফাঁসি কার্যকর করতে বলা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানায়।

খবরে বলা হয়, ২০১২ সালে নির্ভয়া ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ড মামলায় অভিযুক্ত অক্ষয় ঠাকুর সিংহ, মুকেশ, পাবন গুপ্তা ও বিনয় শর্মা দোষী প্রমাণিত হয়েছে। আগামী ২২ জানুয়ারি সকাল ৭টায় তাদের ফাঁসি কার্যকরের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর ভারতের রাজধানী দিল্লিতে চলন্ত বাসে গণধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন প্যারা মেডিক্যালের এক শিক্ষার্থী। প্রেমিকের সামনেই গণধর্ষণের শিকার হন ভারতব্যাপী ‘নির্ভয়া’ নামে পরিচিতি পাওয়া ওই নারী। দু’জনকেই মারধরের পর বাস থেকে ছুড়ে ফেলা হয়। ওই বছরই ২৯ ডিসেম্বর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় নির্ভয়ার।

এদিকে, ২০১২ সালের ১৮ ডিসেম্বর এ ঘটনায় চার অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ২১ ডিসেম্বর আরও এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়। গণধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করা হলে ২০১৩ সালের ১৭ জানুয়ারি ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টে পাঁচ প্রাপ্তবয়স্ক অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা শুরু হয়। ওই বছরের ১১ মার্চ তিহার জেলে মূল আসামি রাম সিং আত্মহত্যা করে।

পরে ২৩ সেপ্টেম্বর অন্য চার আসামিকে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেন ফাস্ট ট্র্যাক কোর্ট। ২০১৪ সালের ১৩ মার্চ নি¤œ আদালতের রায়ই বহাল রাখে দিল্লি হাইকোর্ট। পরে সুপ্রিমকোর্টে এ রায়কে চ্যালেঞ্জ করে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামি। ২০১৭ সালের ৫ মে মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্ট। ২০১৯ সালের নভেম্বরে সুপ্রিম কোর্টে রায় পুনর্বিবেচনার আরজি জানায় আসামি অক্ষয় কুমার সিংহ। ১৬ ডিসেম্বর রায় পুর্নবিবেচনার জন্য প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে তিন বিচারপতির বেঞ্চ গঠন করা হয়। অবশেষে ১৮ ডিসেম্বর চার আসামির মৃত্যুদণ্ডাদেশই বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্ট।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.