নারায়ণগঞ্জে সংঘর্ষ: সাবেক ও বর্তমান কাউন্সিলরসহ গ্রেপ্তার ২২

দক্ষিণাঞ্চল ডেক্স
নারায়ণগঞ্জে মসজিদের কমিটি নিয়ে বিরোধের জেরে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় সাবেক ও বর্তমান দুই কাউন্সিলরসহ ২২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলাম জানান, রোববার গভীর রাতে নগরীর নিতাইগঞ্জ নলুয়াপাড়া এলাকায় ওই সংঘর্ষের ঘটনায় দুই পক্ষই পাল্টাপাল্টি মামলা করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, কমিটি নিয়ে বিরোধের জেরে সিটি করপোরেশনের ১৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কবীর হোসেন এবং মহানগর শ্রমিক লীগের সভাপতি কামরুল হাসান মুন্নার অনুসারীদের মধ্যে মধ্যরাতে সংঘর্ষ বাঁধে।
কবীর ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর। আর ওই ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মুন্না বর্তমানে মসজিদ কমিটির সভাপতি। তাদের দুজনকেই পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।
স্থানীয়রা জানান, মসজিদের কমিটি নিয়ে কবীর ও কামরুলের মধ্যে বিরোধ চলছিল দীর্ঘদিন ধরে। রোববার সন্ধ্যায় কবীরের ভাগ্নে টিপু বর্তমান কমিটির কাছে টাকার হিসাব চাইলে তাকে মারধর করে মসজিদ থেকে বের করে দেন মুন্নার অনুসারীরা।
এর জেরে রাত সাড়ে ১২টার দিকে কবির ও মুন্নার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। দুই পক্ষের লোকজন অস্ত্র ও লাঠিসোঁটা নিয়ে পরস্পরের ওপর হামলা চালায়।
দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার মধ্যে কয়েক রাউন্ড গুলির শব্দে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে বলে ওসি কামরুল ইসলাম জানান।
রাতের এই সংঘর্ষে কবির, নেয়ামত উল­াহ, সুজন, সত্যজিৎ ও দুর্জয়সহ অন্তত দশজন আহত হন। তাদের নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.