February 25, 2024
আঞ্চলিক

নানা আয়োজনে খুলনায় বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

খবর বিজ্ঞপ্তি

বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামে বিজয় ছিনিয়ে আনতে কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন দলটির খুলনার নেতাকর্মীরা। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে খুলনায় তিন দিনের কর্মসূচির প্রথম দিনে অনুষ্ঠিত জমায়েত ও সমাবেশে এ অঙ্গীকার ব্যক্ত করা হয়।

প্রচন্ড বৈরী আবহাওয়া ও মুষলধারে বৃষ্টির কারণে বৃহত্তর আকারে কর্মসূচি পালনের প্রস্ততি থাকলেও তা সংক্ষিপ্ত করতে হয়। নগরী ও জেলার বিভিন্ন থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন থেকে খন্ড খন্ড মিছিল সমাবেশে এসে যোগ দেন। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপ্রতি জিয়াউর রহমান, বীর উত্তম, দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিশালাকৃতির পোট্রেট র‌্যালীর জন্য প্রস্তত রাখা হয়। র‌্যালীতে বহনের জন্য জাতীয় ও দলীয় পতাকা রাস্তার দুধারে সজ্জিত রাখা হয়। ব্যান্ডের তালে তালে পরিবেশিত হয় প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ গানের সুর। কিন্তু প্রচন্ড বৈরি আবহাওয়ার কারণে র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়নি।

বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জুর সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন বর্ষিয়ান রাজনীতিবীদ, ভাষা সৈনিক ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য এম নুরুল ইসলাম দাদু ভাই। তিনি বেলুন, ফেস্টুন ও কবুতর উড়িয়ে কর্মসূচির সূচনা করেন।

এরপর বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানসহ আজ অবধি বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে বিএনপির যে সকল নেতাকর্মী শহীদ হয়েছেন এবং স্বাভাবিকভাবে মারা গেছেন তাদের সকলের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। দোয়া করা হয় কারবিন্দ চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও আশু সুস্থতার জন্য। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের জন্য বিশেষ দোয়া মোনাজাত করা হয়। দোয়া পরিচালনা করেন ওলামা দল নেতা মাওলান শফিকুল ইসলাম।

এছাড়া সমাবেশে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. এস এম শফিকুল আলম মনা, নগরের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, জেলার সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খান। সমাবেশ পরিচালনা করেন আসাদুজ্জামান মুরাদ ও ওহেদুজ্জামান রানা।

এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, অধ্যাপক ডাঃ গাজী আব্দুল হক, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, মনিরুজ্জামান মন্টু, শেখ আব্দুর রশিদ, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, মোল্লা মোশারফ হোসেন মফিজ, সাইফুর রহমান মিন্টু, ডাঃ আব্দুল মজিদ, এ্যাড. নুরুল হাসান রুবা, এ্যাড. গোলাম মাওলা, রেহানা আক্তার, এ্যাড. তছলিমা খাতুন ছন্দা, মেহেদী হাসান দীপু, মাহবুব হাসান পিয়ারু, শামীম কবির, একরামুল হক হেলাল, তৈয়েবুর রহমান, উজ্জল কুমার সাহা, মুজিবর রহমান, কবীর হোসেন, শরিফুল ইসলাম বাবু, আব্দুল মান্নান মিস্ত্রি প্রমুখ।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *