না’গঞ্জের সেই ইউএনওর ওএসডি বাতিল

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হোসনে আরা বীণাকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করার আদেশ বাতিল করা হয়েছে। সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মুহাম্মদ শাহীন ইমরান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে ওএসডি বাতিলের বিষয়টি জানানো হয়। গত ৪ ফেব্র“য়ারি তাকে ওএসডি করার পর ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসের জের ধরে ব্যাপক তোলপাড়ের ২১ দিনের মধ্যে ওএসডি বাতিল করা হলো।
এর আগে অন্তঃসত্ত¡ার কারণে ইউএনও হোসনে আরা বীণাকে ওএসডি করায় গত ১১ ফেব্র“য়ারি সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেন এমপিরা। এ ধরনের সিদ্ধান্ত বর্তমান নারীর ক্ষমতায়নের যুগে একটি ভুল সিদ্ধান্ত বলেও মন্তব্য করেন তারা। সেসঙ্গে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করার ঘটনা তদন্তের দাবি উঠে সংসদে। পাশাপাশি এর সঙ্গে কারা জড়িত তা বের করার কথাও বলা হয়। সেসময় ওএসডির আদেশ খতিয়ে দেখার দাবির বিষয়ে জনপ্রশাসনমন্ত্রী পদক্ষেপ নেবেন বলে সংসদে সভাপতির আসনে থাকা ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া আশা প্রকাশ করেছিলেন।
গেল ৯ ফেব্র“য়ারি ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস হোসনে আরা বীণা অভিযোগ করেন, সন্তান সম্ভবা হওয়ার পর একজন বিশেষ কর্মকর্তা তাকে অযোগ্য হিসেবে উপস্থাপন করে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা থেকে বদলির পাঁয়তারা করছিল। তার সন্তান প্রসবের সম্ভাব্য তারিখ ছিল ২০ এপ্রিল, কিন্তু ওএসডি হওয়ার খবর শুনে প্রচণ্ড মানসিক চাপে ফুসফুসে ব্লাড সার্কুলেশন অস্বাভাবিকভাবে কমে যায়, ফলে পেটের সন্তানের অক্সিজেন সাপ্লাই বন্ধ হয়ে যায় এবং হঠাৎ করেই পেটের বাবু নড়াচড়া পুরোপুরি বন্ধ করে দেয় বলে জানান তিনি স্ট্যাটাসে।
তিনি আরও জানান, ৫ ফেব্র“য়ারি তার ৩১ সপ্তাহ বয়সী প্রি-ম্যাচিউর বাচ্চা সিজার করে বের করে ফেলা হয়। এখন তিনি স্কয়ার হাসপাতালের এনআইসিওতে বেঁচে থাকার জন্য প্রাণপণ যুদ্ধ করে যাচ্ছে। এ নিষ্ঠুর অমানবিকতার পৃথিবীতে কোনও কর্তা ব্যক্তিদের কাছে আমি এ অন্যায়ের বিচার চাই না, শুধু আমার সৃষ্টিকর্তাকে বলব তুমি এর বিচার করো!!!

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.