নতুন এমপিদের শপথ বেআইনি দাবি করে খোকনের নোটিস

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
দশম জাতীয় সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ীদের নেওয়া শপথ বাতিল করে গেজেট প্রকাশের দাবি জানিয়ে উকিল নোটিস পাঠিয়েছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মাহবুবউদ্দিন খোকন।
সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক খোকন মঙ্গলবার আইনজীবী তাহেরুল ইসলাম তৌহিদের মাধ্যমে স্পিকার, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে এই নোটিসটি পাঠান। আগামী ১৩ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ৯টার মধ্যে নোটিসের জবাব চেয়েছেন খোকন। তা না হলে আদালতে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে খোকন সাংবাদিকদের বলেছেন, এর ব্যত্যয় ঘটলে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা চার দিন পর ৯ জানুয়ারি শপথ নিয়েছিলেন। বিএনপিবিহীন ওই সংসদের যাত্রা শুরু হয়েছিল ওই বছরের ২৯ জানুয়ারি। সে অনুযায়ী আগামী ২৯ জানুয়ারি পর্যন্ত দশম সংসদের মেয়াদ।
মেয়াদ অবসানের ৯০ দিন আগে থেকে পরবর্তী ৩০ দিনের মধ্যে নতুন নির্বাচন করার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা অনুসরণ করে গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়েছে একাদশ সংসদ নির্বাচন। এই নির্বাচনে বিজয়ীরা গত ৩ জানুয়ারি সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন। নতুন সরকারের শপথ অনুষ্ঠানও হয়েছে ৭ জানুয়ারি। তার একদিন বাদেই মঙ্গলবার দুপুরে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে উকিল নোটিসটি পাঠান মাহবুবউদ্দিন খোকন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, দশম জাতীয় সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে একাদশ সংসদের নবনির্বাচিত সদস্যরা শপথ নিয়ে সংবিধান লক্সঘন করেছেন।
খোকন বলেন, সংবিধানের ১২৩ (৩) অনুচ্ছেদে বলা আছে, প্রতি সংসদ মেয়াদোত্তীর্ণ হলে পূর্বের সংসদ সমাপ্তি না হওয়া পর্যন্ত এরা দায়িত্ব পালন করবেন। সে অনুযায়ী নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যদের ৩ জানুয়ারি নেওয়া শপথে সংবিধান লক্সঘন হয়েছে। সংবিধানের ১৪৮ (৩) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী শপথের জন্য নির্বাচিতদের উচিৎ ছিল ১২৩(৩) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করা। ফলে এই শপথ বাতিল করার জন্য আমরা বলেছি। শপথ বাতিল পাশাপাশি নতুন করে গেজেট করতে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *