নগরীতে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণে তিনজনকে আসামী করে মামলা

খানজাহান আলী থানা প্রতিনিধি
নগরীর খানজাহান আলী থানাধীন আলিম সিটিগেট রেললাইন এলাকায় গণধর্ষণের ঘটনায় ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে খানজাহান আলী থানায় তিনজনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেছে। মামলার দায়েরের পরই অভিযুক্ত ধর্ষকদের গ্রেফতারে পুলিশের বিশেষ অভিযান চলছে। ধর্ষিতার অসহায় দরিদ্র পরিবারের আর্তনাতে এলাকাবাসীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক ব্যক্তি এই নেক্কারজনক ঘটনায় ধর্ষকদের দ্রুত সময়ে গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।
পুলিশ জানান, আফিলগেট এলাকায় দশম শ্রেনীর ছাত্রীকে ফুসলিয়ে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে সুকৌশলে আলিম সিটিগেট ্এলকার একটি পরিত্যাক্ত ভবনের ছাদে নিয়ে তিন বন্ধু মিলে ধর্ষণের ঘটনায় ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে খানজাহান আলী থানায় মঙ্গলবার রাতে মামলা দায়ের করেছে (মামলা নং ২১ তাং ২৯/১/১৯। মামলার আলীমগেট কলাবাগান এলাকার রুস্তম মাস্তানের পুত্র মোঃ সাগর, তার বন্ধু একই এলাকার রেনু মিয়ার পুত্র বেল্লাল হোসেন এবং টোকেনের পুত্র শফিকুর রহমান শফিক কে আসামী করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে এডিসি শেখ ইমরান হোসেন জানিয়েছেন, আসামীদের গ্রেফতারকে চ্যালেঞ্জ হিসাবে গ্রহণ করে তাদেরকে গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে। দ্রত সময়ে সকল আসামীদেরকে গ্রেফতার করে আইনের কাছে সোর্পাদ করা হবে।
এদিকে গতকাল ভিকটিমের বাড়ীতে গিয়ে দেখা যায় অসহায় ধর্মভীরু দরিদ্র পরিবারের সদস্যরা লোকলজ্জায় ঘর থেকে বাহির হতে পারছেনা। ভিকটিমের বৃদ্ধা পিতা জানান দীর্ঘ ছত্রিশ বছর যাবত তিনি আল্লাহ’র ঘরের একটি দায়িত্বপালন করে আসছি। হাজারও দরিদ্রতার মধ্যে কখন কোন দিন কোন মাথানত করিনি। কান্না জড়িত কন্ঠে এমন এমন কথা বলে কণ্যার ভবিষ্যতের কথা ভেবে তারা বারবার মুর্সা যাচ্ছিল।
উল্লেখ্য, গত ২৮ জানুয়ারী রাতে সাগর নামের এক যুবক তাকে কিছু কেনাকাটার করে দেবার প্রলোভন দেখিয়ে সারাদিন বিবিন্ন স্থানে ঘুরিয়ে সন্ধ্যায় সাগর তার বন্ধু শফিক ও বেল্লাল নিয়ে ধর্ষণ করে। বর্তমানে সে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.