নগরীতে ভুয়া সন্তান সেজে জমি দখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

দ: প্রতিবেদক
ভুয়া সন্তান সেজে নগরীর সিদ্দিকীয়া মহল্লা , ডাকবাংলা ঘড়ি মঞ্জিল ও খালিশপুর এনডি-৫১নং বাড়ি ও জমি দখল-হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন আল ইমরান হোসেন মানিক। গতকাল মঙ্গলবার খুলনা প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি দাবি করেন, আমার মা শিরিনা বেগম তার প্রথম জীবনে শেখ জামসেদ আলীকে বিয়ে করেন। ঐ ঘরে কোন সন্তান ছিল না। শেখ জামসেদ আলীর মৃত্যুর পর আমার মা শেখ মোহাম্মাদকে বিয়ে করেন। তখন এলিজা মমতাজ কচি নামের একটি মেয়েকে তারা লালন পালন করেন। এরপর আমার মায়ের গর্ভে আমি এবং আমার বোন নূর ইয়াসমীন হীরা জন্মগ্রহণ করি। আমরা জানতাম এলিজা মমতাজ কচি আগের ঘরের আমাদের বড় বোন। কিন্তু পরে জানতে পারি তিনি আমাদের কেউ নেন। আমার মায়ের আগের স্বামী শেখ জামসেদ আলী ১৯৭৫ সালে মৃত্যুর তিন বছর পর কচির ১৯৭৮ সালে জন্ম। তাকে লালন পালন করার জন্য আমার মা তাকে রাখে। কচি তার কথিত পিতাকে স্বামী বানাইয়া ভুয়া সম্পত্তি রেকর্ড করে। বর্তমানে সমস্ত সম্পত্তির একক মালিক শিরিনা বেগম।
তিনি আরও বলেন, কচি খুলনা সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা তাছাদ্দেককে বিয়ে করেন। পরে জাল জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে আমাদের উক্ত সম্পত্তি থেকে আমাকে বেদখল করে আমার নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। এছাড়া আমার বোনকে বাড়ী থেকে বের করে দেওয়া এবং পুলিশ দিয়ে আমাদেরকে হয়রানী করেছে। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠুত বিচার দাবি করেছেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.