February 25, 2024
আঞ্চলিক

নগরীতে ব্যবসায়িক চুক্তিপত্র জালিয়াতি করে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ

দ: প্রতিবেদক

খুলনায় ব্যবসায়িক চুক্তিপত্র জ্বালিয়াতি করে মিথ্যা মামলা ও জিডি করে হয়রানি ও হুমকি প্রদানের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নগরীর শেরে বাংলা রোডের বাসিন্দা মোঃ আব্দুল কাদের। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় খুলনা প্রেস ক্লাবে তিনি এই সংবাদ সম্মেলন করেন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমার তিন পুত্র, বড় পুত্র ওবায়দুর রহমান (৪৩), ২য় পুত্র মাহমুদুর রহমান (৩৬) একজন আইটি আউটসোর্সিং ফার্ম ক্লিপিং ডিজাইন এর মালিক ও ৩য় পুত্র আরিফুর রহমান (২৮) মধুমতি ব্যাংক লিঃ এ কর্মরত। আমার ২য় ছেলে মাহমুদুর রহমান এর আইটি ফার্ম ক্লিপিং ডিজাইন আউটসোর্সিং তার বন্ধু মাজেদ সরকার, পিতা – মৃত আব্দুল মতিন সরকার, স্থায়ী ঠিকানা- সাং খামার রঘুনাথপুর, থানা ও জেলা গাইবান্ধা। বর্তমান ঠিকানা- ৩৬৬/৩ শেরে বাংলা রোড, সোনাডাঙ্গা মডেল থানা এর সাথে ৩৫% শেয়ারে ছিলেন। চুক্তি অনুযায়ী ক্লিপিং ডিজাইন এর ওয়েব সাইট এর মালিক আমার মেজ ছেলে মাহামুদুর রহমান। ও ওয়েব সাইটের মাধ্যমে একমাত্র গ্রাফিক্স ডিজাইনের যে ব্যবসা হইবে তাহার উপরে যে লাভ হইবে তার ৪৫% পাবে আমার মেজ ছেলে মাহমুদুর রহমান ও মাজেদ সরকার পারভেজ পাবেন ৩৫% ও ২০% ব্যবসার উন্নয়নে বরাদ্দ থাকবে। যা একটি একশত ও পঞ্চাশ টাকার স্ট্যাম্পে লিখিত হয়েছিল ২০১০ সালে। যাহার নং ম ৪৩০৭০২৫ ও য ০২২৬৫৩৮। এই চুক্তিতে তারা ২০১১ সাল থেকে ব্যবসা করে আসছিলেন। এবং মৌখিক সম্মতিক্রমে এই প্রতিষ্ঠানের ব্যাকং অ্যাকাউন্ট সর্বদা মাহমুদুর রহমান এর নিজ নামেই লেনদেন পরিচালিত হইতে থাকে। ২০১৫ সালের মার্চ মাসে একটি বিশেষ ক্লাইন্ট এর প্রয়োজনে তারা একটি পৃথক যৌথ একাউন্ট করেছিল। এছাড়াও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ভাড়ার চুক্তি পত্র ও ট্রেড লাইসেন্স সবকিছুই আমার ছেলের নামে ছিল।

তিনি আরো বলেন, নিয়মিত নয় বৎসর যাবত আমার ছেলের কাছ থেকে যাবতীয় হিসাব বুঝে নিয়ে শেয়ারের নগদ টাকা সাক্ষর করে বুঝে নেওয়ার পরও হঠ্যাৎ মাজেদ সরকার পারভেজ গত ১৫ আগষ্ট ২০১৯ তারিখ একটি ভুয়া চুক্তিপত্র তৈরি করে। যেখানে নিজেকে সে ক্লিপিং ডিজাইনের ওয়েব সাইটের মালিক দাবি করে। এবং আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের কাছে মিথ্যা অভিযোগ ও জ্বাল চুক্তিপত্র এবং কাল্পনিক কাহিনী তৈরী করে আমার ২য় ছেলে, ছোট ছেলে ও আমার বিরুদ্ধে চার কোটি টাকা আত্মসাতের মিথ্যা মামলা দায়ের করে (সোনাডাঙ্গা থানা মামলা নং ১৯/২০১৯)। যে মামলায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী আমাকে ও আমার মেজ ছেলেকে ১৯.০৪.১৯ তারিখে আটক করে। আমি গত ২৮.০৮.১৯ তারিখে আমি বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জামিনে বের হই। আমার ছেলে এখনও মিথ্যা অভিযোগে জেল হাজতে রয়েছে। আমরা যখন বিষয়টি আদালতের মাধ্যমে সত্য তুলে ধরার চেষ্টা করছি। ঠিক তখনই মাজেদ সরকার পারভেজ আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে থানায় জিডি করে আমাকে নানা ভাবে হুমকি ধামকি দিচ্ছে। এবং তার দাবিকৃত টাকা দিয়ে মিল মিশ করার কথা বলছে। অথচ তিনি গত রবিবার থানায় আমার বিরুদ্ধে আরো একটি মিথ্যা অভিযোগ করেন যে তাকে আমি হুমকি দিচ্ছি এই মর্মে আর একটি জিডি করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে তার বড় ছেলে ওবায়দুর রহমানসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিল।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *