দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতুর ৩ কিলোমিটারেরও বেশি

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

পদ্মাসেতুর ৩২ ও ৩৩ নম্বর পিলারের উপর ২১তম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে তিন কিলোমিটারের বেশি দৃশ্যমান হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকালে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে এ স্প্যানটি বসানো হয়েছে। ইতিমধ্যে সেতুর প্রায় ৮৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে বলে সেতু বিভাগের প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর বলেছেন।

পদ্মাসেতু বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, মঙ্গলবার সকালে মাওয়ার মুন্সিগঞ্জের কুমারভোগের বিষেশায়িত জেডি থেকে ২১তম স্প্যানটি নিয়ে শক্তিশালী ভাসমান ক্রেন তিয়া নি হাউ জাজিরার উদ্দেশে রওনা হয়। সকাল ১১টার দিকে স্প্যান নিয়ে ক্রেনটি জাজিরা প্রান্তে পৌঁছায়। বিকাল ৩টায় ৩২ ও ৩৩ নম্বর পিলারের উপর স্প্যানটি বসানো হয়।

এ নিয়ে জাজিরা প্রান্তে ১৩টি স্প্যান বসানো হলো। জাজিরা প্রান্তে দৃশ্যমান হলো এক হাজার ৯৫০ মিটার। অপরদিকে মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে আটটি স্প্যান বসানো হয়েছে। এ নিয়ে পদ্মাসেতুর মোট তিন হাজার ১৫০ মিটার দৃশ্যমান হলো।

২০১৭ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর সেতুর ১ম স্প্যান, ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি দ্বিতীয় স্প্যান, ১০ মার্চ তৃতীয় স্প্যান, ১৩ এপ্রিল ৪র্থ স্প্যান, ২৯ জুন ৫ম স্প্যান, ২০১৯ সালে ২৩ জানুয়ারি ৬ষ্ট স্প্যান, ২০ ফেব্রæয়ারি ৭ম স্প্যান, ২০ মার্চ ৮ম স্প্যান, ১৮ এপ্রিল ৯ম স্প্যান বসানো হয়।

মঙ্গলমাঝির ঘাটের মোসলেম মাদবর বলেন, আমরা জমিজমা দিয়েও শান্তি পেয়েছি। ধীরে ধীরে পদ্মাসেতু কাজ এগিয়ে যাচ্ছে।

সেতু বিভাগের প্রকৌশলী মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, মঙ্গলবার পদ্মাসেতুর ২১তম স্প্যানটি বসানো হলো। ইতোমধ্যে সেতুর প্রায় ৮৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। আগামী বছরের জুলাই মাসের মধ্যে সবকটি স্প্যান বসিয়ে সেতুটি দৃশ্যমান করে তুলবো বলে আশা করছি।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.