দুই হাজার প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হবে : শিক্ষামন্ত্রী

দেশের দুই হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ধাপে ধাপে এমপিওভুক্তির আওতায় আনা হবে বলে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জানিয়েছেন। গতকাল রোববার সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে দিপু মনি জানান, এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। অর্থপ্রাপ্তি সাপেক্ষে ‘অতি দ্রুত’ এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা হবে।
ওই সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অনলাইনে ৯ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির আবেদন করেছে। এরমধ্যে ২ হাজার প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্তর জন্য যোগ্য হিসেবে বাছাই করা হয়েছে। অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। অর্থপ্রাপ্তি সাপেক্ষে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ধাপে ধাপে এমপিওভুক্ত করা হবে।
প্রশ্নোত্তরে তিনি জানান, স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে প্রত্যাশী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের থেকে অনলাইনে আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে। আবেদনপত্র যাচাই-বাছাই কার্যক্রম চলমান রয়েছে। যাচাই-বাছাই শেষে উপযুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে পর্যায়ক্রমে এমপিওভুক্তকরণের কার্যক্রম শিগগিরই শুরু করা হবে।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, জনসংখ্যা আয়তন বিবেচনা করে প্রত্যেক এলাকায় কতগুলো প্রতিষ্ঠান হওয়া দরকার তার প্রাপ্যতার হিসাব আছে। অনেক জায়গায় কম আছে অনেক জাযগায় বেশি আছে। যখন এমপিওভুক্তির প্রশ্ন আসবে তখন অনেক ফ্যাক্টর দেখতে হবে। ন্যায্যতার প্রশ্নও জড়িত আছে। নির্বাচনী এলাকাভিত্তিক করে ন্যায্যতাভিত্তিক করতে পারি সে চেষ্টা থাকবে। সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জরিপের মাধ্যমে পরিত্যক্ত ভবন চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় নিরিখে পর্যায়ক্রমে নতুন ভবন নির্মাণ করা হবে বলে জানান তিনি।
আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন বলেন, আগামী ২০২২ সালের মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা বোর্ড গঠনের কার্যক্রম সম্পন্ন করার পরিকল্পনা রয়েছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.