February 27, 2024
জাতীয়

তাদের সব হত্যাকাণ্ডের বিচার বিশেষ ট্রাইব্যুনালে হওয়া উচিত : তথ্যমন্ত্রী

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

হত্যা-গুম নিয়ে কথা বলার অধিকার বিএনপির নেই বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত শোক দিবসের আলোচনা সভায় এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে হত্যার রাজনীতি শুরু করছে জিয়াউর রহমান ও তার বিএনপি। জিয়াউর রহমান যখন ক্ষমতায় ছিল তখন আওয়ামী লীগের বহু নেতাকর্মী গুম হয়েছে, হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে। ২০০১ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত ২১ হাজার মানুষ হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে। সুতরাং তাদের এই সমস্ত বিষয় নিয়ে কথা বলার অধিকার নেই।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ্য করে হাছান মাহমুদ বলেন, আপনি মহাসচিবের ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব এবং মূল দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে আপনার নেতৃত্বের হাতে সহস্রাধিক মানুষ পেট্রোল বোমা এবং সন্ত্রাসের কারণে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে। আর এই সমস্ত কিছুর হুকুমের আসামি হচ্ছেন তারা, যারা বড় বড় কথা বলেছেন গতকাল।

যারা শুধু পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করেছে তারাই দায়ী নয়, তাদেরকে যারা পরিচালনা করেছে, অর্থায়ন করেছে, পেট্রোল বোমা হাতে তুলে দিয়েছে, এই বিএনপি নেতৃত্ব, তারা দায়ী। আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, একটি বিশেষ ট্রাইব্যুনাল করে এসব ঘটনার বিচার হওয়া দরকার।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি গতকাল সংবাদ সম্মেলন করেছে এবং মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ অন্যান্য নেতারা সেখানে বক্তব্য রেখেছেন। বাংলাদেশ গত ১০ বছরে কত মানুষ হারিয়ে গেছে, সে বিষয়ে কথা বলেছেন।

এই বিএনপি দলটি গঠিত হয়েছে রক্তে রঞ্জিত হাত দিয়ে, জিয়াউর রহমানের হাত দিয়ে। মানুষের রক্তের ওপর বিএনপি গঠন করা হয়েছে। জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখল করার পর ক্ষমতাকে নিষ্কন্টক করার জন্য ১৬০০ সেনা সদস্যকে হত্যা করেছে। অর্থাৎ যে জিয়াউর রহমানের হাত মানুষের রক্তে রঞ্জিত, তার হাত ধরে বিএনপির জন্ম। অর্থাৎ মানুষের রক্তের ওপর দাঁড়িয়ে আছে বিএনপি।

আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, সাবেক খাদ্য মন্ত্রী কামরুল ইসলাম, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু, আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার সভায় বক্তব্য রাখেন।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *