ঢাকার ঝুঁকিপূর্ণ ভবন ভেঙ্গে ফেলার উদ্যোগ নেয়া হবে : গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী

ঢাকা শহরে বর্তমানে ২৫৫টি ঝুঁকিপূর্ণ ভবন বিদ্যমান রয়েছে। চূড়ান্তভাবে ঝুঁকিপূর্ণ নিশ্চিত করে এগুলো ভেঙ্গে ফেলার উদ্যোগ নেয়া হবে।
আজ সংসদে সরকারি দলের সদস্য এম. আবদুল লতিফের এক তারকা চিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম এ কথা জানান।
মন্ত্রী বলেন, ২০১০ সালে রাজউক প্রাথমিকভাবে ৩২১টি ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিত করে। কিন্তু সিটি কর্পোরেশন অর্ডিনেন্স অনুযায়ী ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিতকরণ ও ভেঙ্গে ফেলার দায়িত্ব সিটি কর্পোরেশনের।
তিনি বলেন, ২০১৬ সালে রাজউক ৩২১টি ভবনের পুনরায় জরিপ করে। এর মধ্যে ২৫টি ভবন মালিকরা ভেঙ্গে ফেলে। এছাড়া ২৮টি ভবন মালিকরা ভেঙ্গে নতুনভাবে নির্মাণ করেছে। বর্তমানে ২৫৫টি ঝুঁকিপূর্ণ ভবন বিদ্যমান রয়েছে। এর মধ্যে ৩৫টি অতি ঝুঁকিপূর্ণ ভবন এবং ২২০টি বাহ্যিক ঝুঁকিপূর্ণ ভবন।
শ. ম. রেজাউল করিম জানান, সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে বিশেষজ্ঞ পর্যায়ে এই ভবনগুলো চূড়ান্তভাবে ঝুঁকিপূর্ণ নিশ্চিত করে এগুলো ভেঙ্গে ফেলার উদ্যোগ নেয়া হবে। এজন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের অধীন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও সংস্থার প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ বিষয়ে কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে তিনি জানান। বাসস

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.