ডাকসু নির্বাচনের তফসিল ‘শিগগিরই’     

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক  

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনের তফসিল ‘শিগগিরই’ ঘোষণা করা হবে। ডাকসু নির্বাচনকে সামনে রেখে মঙ্গলবার এক প্রস্তুতি সভার পর এ কথা বলেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রাব্বানী।  

 

তিনি বলেন, খুব শিগগিরই তফলিস ঘোষণা করা হবে। রিটার্নিং কর্মকর্তা তার কাজগুলো অনেকটাই গুছিয়ে এনেছেন। নির্দিষ্ট করে তারিখ বলব না, কারণ এক সপ্তাহের মধ্যেও হতে পারে আবার তার পরেও হতে পারে। তবে কাজের যা অগ্রগতি তাতে খুব শিগগিরই হয়ে যাবে। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের এক সদস্য বুধবারই তফসিল ঘোষণার ইঙ্গিত দিয়েছেন। আগামী ১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচনের দিন ঠিক করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ওইদিন সকাল ৮টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ চলবে। নির্বাচনের গঠনতন্ত্রের ৮(ই) ধারা অনুযায়ী ডাকসুর সভাপতি হিসেবে উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান গত ২৩ জানুয়ারি নির্বাচনের এই তারিখ ও সময় নির্ধারণ করেন।  

 

মঙ্গলবারের প্রস্তুতি সভার বিষয়ে অধ্যাপক রাব্বানী বলেন, ডাকসু নির্বাচনের কার্যক্রম আমরা বেশ কিছুদিন আগে থেকে শুরু করেছি। এখন এই কার্যক্রমগুলো কত দ্রুততর অগ্রসর হচ্ছে সেজন্যই আমাদের এই প্রস্তুতি সভা।  

 

সিন্ডিকেটে যে গঠনতন্ত্র পাস করা হয়েছে তা আজকের সভায় প্রিন্ট আকারে উপস্থাপন করা হয়েছে। ১৫টি বিষয়কে যুক্ত করে আচরণবিধিও চূড়ান্ত করা হয়েছে। আজকের সভায় আমাদের কার কী করণীয় সে বিষয়ে উপাচার্য মহোদয় একটি গাইডলাইন দিয়েছেন।  

 

উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রস্তুতি সভায় উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) মুহাম্মদ সামাদ, কোষাধ্যক্ষ মো. কামাল উদ্দীন, প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা এস এম মাহফুজুর রহমান, রিটার্নিং অফিসাররা, বিভিন্ন হলের প্রাধ্যক্ষ, প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টররা।   

 

সভায় প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা এস এম মাহফুজুর রহমান ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের সর্বশেষ অগ্রগতি, প্রস্তুতি ও করণীয় সম্পর্কে অবহিত করেন। সর্বশেষ ডাকসু নির্বাচন হয়েছিলতিন দশক আগে; ১৯৯০ সালের পর আর নির্বাচন হয়নি। ডাকসু নির্বাচন চেয়ে আদালতে রিট আবেদন হয়েছিল, তাতে ছয় মাসের মধ্যে নির্বাচন আয়োজনের নির্দেশনা আসে গত বছর হাই কোর্ট থেকে।  

 

কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের আবেদনে ওই আদেশ স্থগিত করেছিল আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত। আপিল বিভাগ গত ৬ জানুয়ারি সেই স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে নিলে নির্বাচন আয়োজনের বাধা কাটে। এর ফলে আগামী ১৫ মার্চের মধ্যেই ডাকসু নির্বাচন করতে হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে।  

 

এরপর নির্বাচনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইন্সুরেন্স বিভাগের অধ্যাপক ড. এস এম মাহফুজুর রহমানকে প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং আরও পাঁচজনকে রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হয়। নির্বাচনের জন্য ৭ অধ্যাপকের সমন্বয়ে একটি ‘আচরণবিধি কমিটি’ও গঠন করা হয়েছে।  

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.