টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গাসহ নিহত ২

 

 

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মানবপাচার মামলার দুই আসামি নিহত হয়েছেন, যাদের একজন মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা। গতকাল রোরবার ভোর রাতে টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের কাটাবুনিয়া নৌকা ঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশের ভাষ্য।

নিহতরা হলেন- টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নাইট্যং পাড়ার রশিদ আহাম্মদের ছেলে মোহাম্মদ রুবেল এবং উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মোহাম্মদ হাবিবুল­াহর ছেলে ওমর ফারুক।

পুলিশ বলছে, সাগরপথে মানবপাচারে জড়িত একটি সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্য ছিলেন রুবেল ও ওমর ফারুক। কিছুদিন আগে মালয়েশিয়ায় পাচারের সময় ৪৯ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করার ঘটনায় যে মামলা হয়েছিল, সেখানে তাদের দুজনও আসামি ছিলেন।

ওসি প্রদীপ বলেন, পলাতক আসামি রুবেল ও ফারুক কাটাবুনিয়া নৌকা ঘাট এলাকায় অবস্থান করছে খবর পেয়ে তাদের গ্রেপ্তার করার জন্য পুলিশের একটি দল সেখানে অভিযানে যায়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানো মাত্র মানব পাচারকারীরা গুলি ছুড়তে শুরু করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও তখন পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে মানব পাচারকারী চক্রের সদস্যরা গুলি ছুড়তে ছুড়তে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে রুবেল ও ফারুককে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়।

ওই দুইজনকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেন। তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান ওসি।

তিনি বলেন, ঘটনাস্থল থেকে দুটি বন্দুক ও ১১টি গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। টেকনাফ থানার এসআই নুরুল ইসলাম, কনস্টেবল শামীম রেজা ও মো. মহিউদ্দিন এ অভিযানে আহত হয়েছেন।

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.