February 25, 2024
আঞ্চলিক

ঝিনাইদহে রমজান মাসে আইনশৃংখলা কঠোর হস্তে দমন

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ঃ ঝিনাইদহে রমজান মাসে আইনশৃংখলা কঠোর হস্তে দমন করা হয়েছে।রমজান মাসে ঝিনাইদহ জেলা শহরের সদর থানা এলাকায় আইনশৃংখলা কঠোর হস্তে দমন করেছে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান খাঁন। সদর থানা এলাকায় মাদক বিক্রি বন্ধ হয়ে গেছে।পুলিশের দফায় দফায় অভিযানে গ্রেফতার এড়াতে ও ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা গুটি কয়েক মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীরা পুলিশের আহবানে সাড়া দিয়ে আত্মসমর্পন করে।

ঝিনাইদহের শান্তি প্রিয় মানুয়েরা মনে করেন,দেখেছি ৭১সালের পর ঝিনাইদহে ঈদের সামনে ৪টি মহাসড়কে বাসে ডাকাতি, ডাকাতির কবলে পড়ে হতা-হত।জেলা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে চুরি,ছিনতাই,ডাকাতি।এমনকি ডাকাতির কবলে পড়ে পুলিশ অফিসার খুন।সাধারন মানুষের ঈদে কিনা-কাটা করে বাড়ি ফিরতেই ছিনতাই কারির কবলে পড়ে সর্বশান্ত এমনকি ছিনতাই কারির কবলে পড়ে আহত হয়ে ঈদ হয় হাসপাতাল বেডে। সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান খাঁন রমজান মাসে আইনশৃংখলা কঠোর হস্তে দমন করেন।তিনি যোগদান করার পর ঝিনাইদহে নেই কোন নাশকতা, নেই কোন সরকার উৎক্ষাতের মিছিল।বিরোধী দলের কোন মিছিল-মিটিং। আইনঅজ্ঞরা মনে করছেন পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান এর নির্দেশে আইনশৃংখলা কঠোর হস্তে দমন করে যাচ্ছেন সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান খাঁন । অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) কনক কুমার দাস আইনশৃংখলা কঠোর হস্তে দমন করার জন্য দেখভাল করছেন। তেমনি সদর থানার ওসি তদন্ত এমদাদুল হক ও ওসি অপারেশন মহসীন হোসেন,সদর ফাড়ি পুলিশের টিএসআই তাদের দ্বায়িত্ব ও কর্তব্য কঠিন ভাবে পালন করে যাচ্ছেন।ঝিনাইদহের শান্তি প্রিয় মানুষেরা রমজান মাসে ঈদের কেনা-কাটা করে  শান্তিতে বাড়িতে যাচ্ছেন ও নির্বিগ্নে বাড়িতে ঘুমাচ্ছেন।থানা,ফাড়ি,ডিবিপুলিশ ও সাদা পোষাক ধারী পুলিশ পাড়া-মহল­া,দোকানপাট ও মহাসড়কে টহল জোরদার রেখেছে।তাই ঈদের কেনা-কাটা করে  শান্তিতে বাড়িতে যাচ্ছেন ও নির্বিগ্নে বাড়িতে ঘুমাচ্ছেন।

রাতে ষাটর্ধ এক পথচারী এ প্রতিবেদকের সাথে কথা হলে তিনি জানান,ঈদের সামনে রাস্তা ঘাটে বিভিন্ন পয়েন্টে চোর,ডাকাত ও ছিনতাই কারী ছিল এখন সেই পয়েন্টে শিয়াল,কুকুর,বনবিড়াল,বিড়াল ও ভেড়া বিচরন করে।এসবই ঝিনাইদহ পুলিশের অবদান।

এ প্রতিবেদকের সাথে জেলার বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষের সাথে আলাপপারিতায় জানায়,পুলিশের পাশা-পাশি সরকারের বিভিন্ন সংস্থা ও রাজনৈতিক ব্যাক্তিবর্গ ,কমিউনিটি পুলিশিং ও জনপ্রতিনিধিরা  আইনশৃংখলা নিয়ন্ত্রনে রাখতে সভা সমাবেশ ও আলোচনা করে চলেছেন।

পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান যোগদান করার পর জেলায় আইনশৃংখলা পুলিশের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে বলে আইনঅজ্ঞরা মনে করছেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *