জুয়ার ওয়েবসাইট কেন বন্ধ করা হবে না, প্রশ্ন হাই কোর্টের

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
ইন্টারনেট ভিত্তিক জুয়ার সকল ওয়েবসাইট কেন বন্ধ করা হবে না- তা জানতে চেয়েছে হাই কোর্ট। এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান এবং বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের হাই কোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করে।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব, আইন সচিব, ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব ও বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা -বিটিআরসির চেয়ারম্যানকে দুই সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। ‘বিপিএলে ফের জুয়া, ভারতীয় জুয়াড়ির ১ মাসের জেল’ শীরোনামে দৈনিক যুগান্তরে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন যুক্ত করে পিরোজপুর ফাউন্ডেশনের পক্ষে গত ২১ জানুয়ারি হাই কোর্টে এই রিট আবেদন করা হয়। রিটকারী পক্ষে আদালতে শুনানি করেন আইনজীবী কামরুল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ বি এম আব্দুল­াহ আল মাহমুদ বাশার।
পরে আইনজীবী কামরুল বলেন, আমাদের দেশের জনগণ অন্যান্য উন্নত দেশের মানুষের মত আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে যথেষ্ট সক্ষম নয়। এছাড়া আমাদের সমাজের অধিকাংশ অভিভাবকই ইন্টারনেটের ক্ষতিকর প্রভাব সম্পর্কে অজ্ঞ এবং তারা তাদের সন্তানদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন না।
ফলে এ বিষয়ে জনসাধারণকে সহযোগিতা করতে রাষ্ট্রের সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। কিন্তু রাষ্ট্র যদি তার এ দায়িত্ব পালন না করে তাহলে দেশের জনগণ, বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম জুয়ায় ঝুঁকে পড়বে বা আসক্ত হয়ে পড়েবে। এতে সময়, পড়াশুনার ক্ষতির পাশাপাশি আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে পারে তারা। ফলে এ বিষেয় এখনই কার্যকর পদক্ষেপ নতে হবে।
ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ক্রিকবাজকে উদ্ধৃত করে যুগান্তরের প্রতিবেদনে বলা হয়, সিলেট স্টেডিয়ামে খেলা চলাকালে বেটিং করার সময় এক ভারতীয় জুয়াড়িকে গ্রেপ্তার করে এক মাসের কারাদণ্ড দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *