জাতিসংঘের ভাষণে ট্রাম্পের বিচার চাইলেন ইরানের প্রেসিডেন্ট

ইরানের কুদস ফোর্সের সাবেক কমান্ডার কাসেম সোলাইমানিকে হত্যা করার অপরাধে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিচার করার আহ্বান জানিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। কারণ জেনারেল সোলাইমানি হত্যাকাণ্ডের বিচার প্রশ্নে কোনো ছাড় দেবে না ইরান।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম বার্ষিক অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে এ আহ্বান জানান রাইসি।

তাছাড়া মার্কিন মদদে সৃষ্ট সন্ত্রাসবাদসহ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পাশ্চাত্যের হস্তক্ষেপকামী নীতি বাস্তবায়নে বাধা সৃষ্টি করার ক্ষেত্রে ইরানের ‘উল্লেখযোগ্য ও ক্রমবর্ধমান’ ভূমিকার প্রশংসা করেন তিনি। মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে দিয়ে এ অঞ্চলের মানচিত্রে ব্যাপক পরিবর্তন আনার যে ষড়যন্ত্র সাম্রাজ্যবাদী শক্তিগুলো করেছিল তা নস্যাৎ করে দিতে জেনারেল সোলাইমানি প্রধান ভূমিকা পালন করেছিলেন বলেও জানান রাইসি।

প্রেসিডেন্ট রাইসি বলেন, আমরা একটি ন্যায়ভিত্তিক আদালতে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিচার করার চেষ্টা চালিয়ে যাব।

২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরাসরি নির্দেশে জেনারেল সোলাইমানিকে বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে ড্রোন হামলা চালিয়ে হত্যা করে মার্কিন সেনারা। মূলত সিরিয়া ও ইরাককে ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহার করে উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস যে ভয়াবহ আতঙ্ক সৃষ্টি করেছিল তা দমনে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছিলেন জেনারেল সোলাইমানি।

রাইসি তার ভাষণের অন্য অংশে বলেন, আন্তর্জাতিক সমাজ এখন একটি ‘নতুন যুগ ও বিশ্ব ব্যবস্থায়’ প্রবশে করছে। যেখানে ‘পুরোনো এক মেরুকেন্দ্রীক’ ব্যবস্থার কোনো স্থান থাকবে না।

প্রেসিডেন্ট রাইসি আরও বলেন, এতদিন যে বিশ্ব্যবস্থা ছিল সেটিকে নির্দ্বিধায় যেকোনো দৃষ্টিকোণ থেকে সম্পূর্ণ অনৈতিক বলে চালিয়ে দেওয়া যায়। কিন্তু এভাবে পৃথিবী চলতে পারে না ও এর অবসান হওয়া প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেন ইরানের প্রেসিডেন্ট।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.