ছেলের স্কুল বান্ধবীকে ধর্ষণ ও মোবাইলে ধারণ, ধর্ষক আটক

 

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে ছেলের বান্ধবী এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ ও তা মোবাইল ফোনে ধারণ করে ব্ল্যাকমেইলের মামলার একমাত্র আসামি ধর্ষক শাহ্জাহান বাদশাকে (৪০) নওগাঁ থেকে আটক করেছে র‌্যাব। আটককৃত শাহ্জাহান বাদশা হচ্ছেন শিবগঞ্জ উপজেলার তেলকুপি গ্রামের একরামুল হকের ছেলে এবং তেলকুপি উচ্চ বিদ্যালয়ের করনিক।

গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ র‌্যাব ক্যাম্পের কমান্ডারের নেতৃত্বে নওগাঁ জেলার সাপাহার থানার সোনাডাঙ্গা গ্রামে অভিযান চালিয়ে একটি বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে দুটি মোবাইল ফোন ও বাংলাদেশি কিছু টাকা উদ্ধার করা হয়। বেলা ১২টার দিকে র‌্যাব ক্যাম্পে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানায় র‌্যাব।

র‌্যাব আরও জানায়, ২০১৩ সালে তেলকুপি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়াকালীন একই বিদ্যালয়ের করণিক শাহজাহান বাদশা তার ছেলের বান্ধবী ওই ছাত্রীর ওপর কু-নজর দেন। একপর্যায়ে ওই ছাত্রীকে জোড়পূর্বক ধর্ষণ ও তা মোবাইল ফোনে ধারণ করে তাকে ব্ল্যাকমেইল করে একাধিকবার ধর্ষণ করে।

বর্তমানে এইচএসসি’র প্রথম বর্ষে অধ্যয়নরত ওই ছাত্রীকে শাহ্জাহান বাদশা আবারও ব্ল্যাক মেইল করলে চলতি বছরের ১৮ মার্চ ওই ছাত্রীর ভাই বাদি হয়ে শিবগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার পর শাহ্জাহান বাদশা আত্মগোপনে চলে যান। তিনি নওগাঁ জেলার সীমান্তবর্তী সাপাহার থানার সোনাডাঙ্গায় তার আত্মীয়ের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছিলেন বলে র‌্যাব-৫ চাঁপাইনবাবগঞ্জ ক্যাম্প কমান্ডার স্কোয়ার্ডন লিডার সাঈদ আব্দুল­াহ আল মুরাদ জানান। উলে­খ্য, শাহজাহান বাদশা ওই বিদ্যালয়ের করণিক হলেও নিজেকে তিনি শিক্ষক হিসেবে পরিচয় দিতেন।

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.