করোনা : সর্বশেষ

ছেলেদের চুলের কাট

এখন শুধু মেয়েরা নয়,ছেলেদের হেয়ার স্টাইলেও পরিবর্তন আসছে। হেয়ার স্টাইলে মেয়েদের চাইতে কোনো অংশে পিছিয়ে নেই ছেলেরাও। ফ্যাশন সচেতন তরুণরা জানে, স্টাইলিশ হেয়ার মানে স্মার্ট লুক। বয়স, পেশা বা শারীরিক গঠনের ওপর ভিত্তি করে সাধারণত ছেলেদের হেয়ার স্টাইল নির্বাচন করাটা গুরুত্বপূর্ণ। একই সঙ্গে খেয়াল রাখতে হবে চুলের ধরন, গায়ের রঙ বা লাইফ স্টাইলের বিষয়টিতেও।

ছেলেদের হেয়ার এক্সপার্টরা বলছেন, এই সময়ে লেয়ার কাট, ক্রু কাট, ক্ল্যাসিক কাট, চপি কাট, ক্ল্যাসিক ট্যাপার, ওয়েভি বা ঢেউ খেলানো, স্পাইক কাট, ইমো কাট প্রভৃতি হেয়ার স্টাইল বেশি চলছে। আবার আজকাল অনেকেই চুলে জেল ব্যবহার করছেন। কেউ কেউ চুল রিবন্ডিংও করছেন।

লেয়ার কাট
চুলের নানা ধরনের কাটের মধ্যে বেশি চলছে লেয়ার কাট। লেয়ার কাটের ধরনটা হলো পেছনের দিকে একটু ছোট এবং কানের দুই পাশে একটু ঢেকে ছোট করে কাটা। আর সামনের চুল খুব ছোটও থাকবে না আবার খুব বড়ও থাকবে না। মোটামুটি সব বয়সের ছেলেদেরই এ ধরনের চুলের কাট মানাবে।

স্পাইক কাট
স্পাইক কাট এখন তরুণদের কাছে সমান জনপ্রিয়। অনেকে শুধু সামনের অংশ স্পাইক করছেন। যাদের মুখ কিছুটা গোল, তারা কানের দুই পাশে চুল একটু ছোট রাখতে পারেন। এতে মুখটা ভালোমতো ফুটে উঠবে। আবার একইভাবে যাদের মুখ কিছুটা লম্বা ধরনের, তারা কানের দুই পাশে কিছুটা চুল রেখে দিলে ভালো মানাবে।

ক্ল্যাসিক ট্যাপার
ক্ল্যাসিক ট্যাপার হেয়ার স্টাইল নিতে হলে থাকতে হবে মাঝারি লম্বা চুল। এই স্টাইল করতে মাথার পেছনে ও কানের ওপরের চুল খাটো করে কাটা হয়। কিন্তু কপালের চুল রাখা হয় লম্বা, যাতে চুলগুলো কপালের ওপর ছড়িয়ে রাখা যায় বা ব্যাক ব্রাশ করা যায়।

ইমো কাট
ইমো স্টাইলের জন্যও মাঝারি লম্বা চুল থাকা প্রয়োজন। ইমো স্টাইল করতে অনেকটা এলোমেলোভাবে চুল কাটা হয়। কিন্তু সামনের চুল বড় রাখা হয়। আর মাথার পেছনের চুল স্পাইক স্টাইলে ছোট রাখা হয়। সামনে এবং কানের পাশের বড় চুলগুলো মুখমন্ডলের ওপর প্রায় ছেয়ে থাকে। এটিকে ‘ইমো সুইপ’ বলে।

ক্রু কাট
ক্রু কাটের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, মাথার পেছনের ও পাশের চুল খুব ছোট করে কাটা হয়, কিন্তু ওপরের চুলগুলো ক্রমান্বয়ে কিছুটা বড় ও খাড়া করে রাখা হয়। ক্রু কাট পরিচর্যা করা খুব সহজ। সাধারণত ক্রু কাট দুইরকম হয়ে থাকে এক্সটা শর্ট এবং হাই অ্যান্ড টাইট। ক্ল্যাসিক কাটে মাথার এক পাশে সিঁথি করে চুল আঁচড়ানো হয়।

ছেলেদের হেয়ার স্টাইলের জন্য রাজধানীতে নামকরা কয়েকটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এগুলো হলো পারসোনা এডামস, হেয়ারোবিক্স ফোন ফেস ওয়াস, সুপার কাট স্যালন অ্যান্ড কিডস কর্নার। এসব প্রতিষ্ঠানে ১৫০ টাকা থেকে পাঁচ হাজার টাকায় আপনার পছন্দের কাট দিতে পারবেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!