May 20, 2024
আঞ্চলিক

চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী মা-ছেলেসহ আটক ৫ : জেল-জরিমানা প্রদান

খুলনা মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অভিযান

 

দ: প্রতিবেদক

খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মাদক বিরোধী অভিযানে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী মা-ছেলেসহ ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হচ্ছেন রওশনারা বেগম (৬০) ও তার ছেলে জাহাঙ্গীর হাওলাদার (৪৮), মোঃ শামীম হোসেন (২৪), মোঃ শিমুল (১৯) এবং মোঃ তারেক (৩২)। এদের কাছ থেকে গাজা-ইয়াবাসহ মাদক সেবনের উপকরণ জব্দ করা হয়।

পরবর্তীতে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জাহাঙ্গীর হাওলাদার ও তারেককে ১ মাসের কারাদণ্ডসহ ১ হাজার টাকা জরিমানা এবং শামীম ও শিমুলকে ২ মাসের কারাদণ্ডসহ ১ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করা হয়। রূপসা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাসরিন আক্তার ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। গতকাল মঙ্গলবার দিনব্যাপী রূপসা উপজেলায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়।

খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সূত্র মতে, সংস্থার উপ-পরিচালক মো: রাশেদুজ্জামানের তত্ত¡াবধানে ‘ক’ ‘খ’ সার্কেল ও গোয়েন্দা বিভাগের সমন্বয়ে একটি যৌথ টিম মঙ্গলবার সকালে রূপসা উপজেলায় অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় রূপসা উপজেলা আইচগাতী ইউনিয়নের খানমোহাম্মদপুর আবাসিক এলাকার বাসিন্দা মান্নান হাওলাদারের স্ত্রী রওশনারা বেগম ও তার ছেলে জাহাঙ্গীর হাওলাদারকে ১শ’ গ্রাম গাজাসহ আটক করা হয়। একই এলাকায় সিদ্দিক ব্যাপারীর পুত্র শামীম হোসেন, মো: রজব আলীর পুত্র মো: শিমুল এবং বাচ্চু শরীফের পুত্র মো: তারেককে ইয়াবা সেবনরত ও উপকরণ পাওয়ায় তাদেরকে আটক করেন। আটককৃতদের মধ্যে ৪ জনকে জেল-জরিমানাসহ উভয়দণ্ড প্রদান করা হয়। এছাড়া রওশানারা বেগমের নামে রূপসা থানায় একটি মাদকের আইনের মামলা দায়ের করা হয়। মামলা বাদী ‘ক’ সার্কেলের পরিদর্শক হাওলাদার মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম। অভিযানে গোয়েন্দা বিভাগের পরিদর্শক পারভীন আক্তার, ‘ক’ সার্কেলের পরিদর্শক হাওলাদার মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলামসহ কর্মকর্তা-কর্মচারিরা উপস্থিত ছিলেন।

খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান বলেন, রওশনারা ও তার ছেলে জাহাঙ্গীর রূপসা এলাকায় চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিতি। এর আগে রওশনারা ও তার ছেলেকে একাধিকবার মাদকসহ আটক করা হয়। তারা বিভিন্ন এলাকায় মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিলেন। এছাড়া শিমুল ও শামীমের বিরুদ্ধে এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীর পাশাপাশি সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগ রয়েছে। সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের কারণে তাদের বিরুদ্ধে রূপসা থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে রূপসা থানা পুলিশ আমাদেরকে অবহিত করেন।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *