চিপসের আলুর ভেতর গ্রেনেড !

হংকংয়ে একটি চিপসের কারখানায় ফ্রান্স থেকে পাঠানো একগুচ্ছ আলুর মধ্যে প্রথম বিশ্বযুদ্ধকালীন একটি জার্মান হাত গ্রেনেড পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।কর্দমাক্ত, ৩ ইঞ্চি প্রশস্ত এ গ্রেনেডটির পিন খোলা থাকলেও তা দীর্ঘ সময় ধরে অবিস্ফোরিতই ছিল বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

শনিবার স্থানীয় সময় সকালে পূর্বাঞ্চলের সাই কুং জেলার চিপস তৈরির কারখানা ক্যালবিতে এটি পাওয়া যায় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বোমা নিস্ক্রিয়করণ ইউনিটের কর্মকর্তারা পরে নিরাপদেই গ্রেনেডটির বিস্ফোরণ ঘটান।

“সব তথ্য এটিই ইঙ্গিত করছে যে এটি (গ্রেনেড) ফ্রান্স থেকে অন্য আলুগুলোর সঙ্গেই এসেছে,” সাংবাদিকদের বলেন উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা ওং হো-হোন।

হংকংয়ে পাঠানোর আগে ফ্রান্সের কোনো কৃষিজমিতে অন্যান্য আলু বীজের সঙ্গে ভুলক্রমে গ্রেনেডটিও পুঁতে ফেলা হয়েছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

“যুদ্ধের সময় কোনো সেনা ফেলে গিয়েছিলেন বা ছুড়ে মেরেছিলেন, এরপর থেকে সেটি (অবিস্ফোরিত অবস্থায়) সেখানেই রয়ে যায়,” ‘দ্য সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট’ পত্রিকাকে এমন ধারণার কথাই বলেছেন সামরিক ইতিহাসবিদ ডেভ ম্যাক্রি।

গত বছর হংকংয়ের একটি ভবন নির্মাণস্থলে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার একটি বোমা পাওয়ার পর সেটি নিস্ক্রিয় করতে পুলিশ ব্যস্ত বাণিজ্যিক এলাকা থেকে হাজার হাজার লোককে সরিয়ে নিয়েছিল।

ওই একই সপ্তাহে শহরটিতে আরও একটি বিশ্বযুদ্ধকালীন বোমার সন্ধান মিলেছিল।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.