চকবাজারে আগুন: অবহেলাজনিত প্রাণনাশের মামলা দায়ের

পুরান ঢাকার চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে হতাহতের ঘটনায় ‘অবহেলাজনিত প্রাণনাশ’ অভিযোগে একটি মামলা হয়েছে।

আগুনে জীবন্ত দগ্ধ আরাফাত ইসলাম সিয়ামের (১৯)  আত্মীয় হাবীবুর রহমান রুবেল শুক্রবার চকবাজার থানায় এ মামলা দায়ের করেন বলে ঢাকা মহানগর পুলিশের লালবাগ বিভাগের উপ কমিশনার মোহাম্মদ ইব্রাহীম খান জানান।

চকবাজারের চুড়িহাট্টা মোড়ের হাজী ওয়াহেদ ম্যানশনের মালিক হাজি আবদুল ওয়াহেদের দুই ছেলে শহীদ ও হাসানসহ অজ্ঞাত পরিচয় ১০-১২ জনকে এ মামলায় আসামি করা হয়েছে।

বুধবার রাতে চুড়িহাট্টা মোড়ের কাছে একটি পিকআপের সিলিন্ডার বিস্ফোরণের পর চারতলা ওয়াহেদ ম্যানশনসহ পাঁচটি ভবনে আগুন ধরে যায়। ওই ভবন এবং আশপাশের দোকানে থাকা রাসায়নিক আর প্লাস্টিক-পারফিউমের গুদাম আগুনকে ভয়াবহ মাত্রা দেয় বলে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের ধারণা।

ফায়ার সার্ভিসের ৩৭টি ইউনিট দীর্ঘ ১৪ ঘণ্টার চেষ্টায় সেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে, কিন্তু ততক্ষণে চুড়িহাট্টা মোড় পরিণত হয় মৃত্যুপুরীতে। ঘটনাস্থল থেকে আরাফাতসহ ৬৭ জনের পোড়া লাশ মর্গে পাঠান উদ্ধারকর্মীরা।

উপ কমিশনার মোহাম্মদ ইব্রাহীম খান বলেন, মামলায় দণ্ডবিধির ৩০৪ (ক),৪৩৬, ৪২৭ ও ৩৪ ধারায় অবহেলাজনিত প্রাণনাশ, নাশকতা, মালামালের ক্ষতি করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে চকবাজার থানায় পুলিশের পক্ষ থেকে একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে এ ঘটনায়।

নিহত ৬৭ জনের মধ্যে ৪৫ জনের মরদেহ শনাক্ত করার পর স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করেছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগ।

চুড়িহাট্টায় অগ্নিদগ্ধদের মধ্যে যে নয়জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসা দেওযা হচ্ছে, তাদের মধ্যে ছয়জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.