গোপালগঞ্জে জা-ভাসুরকে ফাঁসাতে নবজাতককে হত্যা করে মা

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় জা আর ভাসুরকে ফাঁসাতে গিয়ে এক মাসের শিশু পুত্রকে পানিতে ফেলে হত্যা করার কথা স্বীকার করছে মা মণীষা মিত্র। এ ঘটনায় নিহত শিশুর মা ও নানাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এতে এলাকাবাসী হতভম্ব হয়ে পড়েছেন। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।
এ ঘটনায় শিশুর বাবা লিংকন মিত্র বাদী হয়ে স্ত্রী মণীষা মিত্র (২০) ও শ্বশুর অবকাশ অধিকারীকে (৫০) আসামি করে কোটালীপাড়া থানায় হত্যা মামলা করেছেন। আসামিদের পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোটালীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুল ফারুক।
ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা গেছে, কোটালীপাড়া উপজেলার ওয়াবদার হাট শান্তি কুটিরের পাশের বাড়িতে লিংকন মিত্র তার স্ত্রী মণীষা, এক মাসের শিশু পুত্র, বড় ভাই ও ভাবিকে নিয়ে থাকতেন। বিভিন্ন সময়ের পরিবারিক দ্বন্দের জের ধরে জা আর ভাসুরকে ফাঁসাতে রোববার বিকেলে এক মাসের শিশু পুত্র এন্ড্র সীমিয়ন মিত্রকে বাড়ির পাশের পুকুরে ফেলে দেয় মা মণীষা মিত্র।
পরে ওই শিশু পুত্র হারিয়ে গেছে- এমন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ কামরুল ফারুক। ওই বাড়িতে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের সময় মণীষা মিত্রের কথায় সন্দেহ হলে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয় হয়। এ সময় ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ওই পুকরে তল­াশি চালিয়ে রাতে ওই শিশু পুত্রের মরদেহ উদ্ধার করে।
মণীষা মিত্র ওয়াবাদারহাট গ্রামের লিংকন মিত্রের স্ত্রী। শিশুটি ওই দম্পত্তির প্রথম ও একমাত্র সন্তান। লিংকন মিত্র ঢাকায় চাকরি করেন। তিনি এ সময় বাড়িতে ছিলেন না। ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে প্রতিনিয়ত গ্রামবাসী ওই বাড়িতে ভিড় করছেন। এতে এলাকাবাসী হয়ে পড়েছেন হতভম্ব। দ্রুত দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী।
কোটালীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুল ফারুক জানান, এ ঘটনায় মা মণীষা মিত্র ও নানা অবকাশ অধিকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আসামিদের পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.