গোপালগঞ্জে কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ করেছে তার পরিবার। বৃহস্পতিবার রাতে কোটালীপাড়া উপজেলার পীরারবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মেয়েটিকে (১৫) গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পীরারবাড়ি গ্রামের পরিক্ষিত মলি­কের ছেলে পরিমল মলি­ক (২২) ও গুরুদাস মলি­কের ছেলে কালু মলি­কের (১৯) বিরুদ্ধে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে।
মেয়েটির বাবা জানান, খুলনার একটি কীর্ত্তনের দলের শিল্পী। দুইদিন আগে সে ছুটিতে বাড়ি আসে।প্রতিদিন সন্ধ্যার পরে সে স্থানীয় বাজারের তার দোকানে ব্যবসার কাজে সাহায্য করে।
গতকাল রাত ৯টার দিকে দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে পরিমল ও কালু তার মেয়ের মুখ বেঁধে পুকুর পাড়ে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে।সেখান থেকে তার মেয়ে কৌঁশলে মোবাইলে ফোন করে বাড়িতে ঘটনাটি জানায়।
পরিমল ও কালু টের পেয়ে মোবাইল ফোন কেড়ে নেয় ও তার মেয়েকে মারধর করে। এক পর্যায়ে সে অজ্ঞান হয়ে গেলে তারা পালিয়ে যায়। পরে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়েকে উদ্ধার করেন।
মেয়েটির মা বলেন, আমার মেয়েকে পরিমল ও কালু ধর্ষণ করেছে।আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। ধর্ষণের শিকার মেয়েটির অভিযোগ, বেশ কিছুদিন ধরে পরিমল পরিচয় গোপন করে ফোনে তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল।ওই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় পরিমল ও তার সহযোগী এ ঘটনা ঘটিয়েছে।
গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে সহকারী পরিচালক ডা. অসিত কুমার মলি­ক জানান, বৃহস্পতিবার রাতে মেয়েটিকে হাসপাতালে ভর্তির পর তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিবেদন এখনও হাতে পাননি বলে এ চিকিৎসক জানান।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোটালীপাড়া থানার ওসি মোহাম্মদ কামরুল ফারুক বলেন, তারা এ বিষয়ে তারা কিছু জানেন না।অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.