গুলশান হামলায় অস্ত্র সরবরাহকারীর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
গুলশানে হলি আর্টিজান রেষ্টুরেন্ট এন্ড বেকারিতে জঙ্গি হামলা মামলার গ্রেপ্তারকৃত চার্জশিট ভুক্ত আসামি মোহাম্মাদ মামুনুর রশিদ ওরফে রিপন ওরফে রেজাউল করিম ওরফে রেজা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।
শনিবার রাজধানীর সবুজবাগ থানায় সন্ত্রাস বিরোধী আইনের মামলায় পাঁচদিনের রিমান্ড শেষে মামুনুর রশিদকে আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশের সহকারী কমিশনার (এএসপি) মো. কফিলউদ্দিন। আসামি স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হওয়ায় তা রেকর্ড করার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা।
আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াছির আহসান চৌধুরী তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গত ২০ জানুয়ারি এ আসামির ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এর আগে গত ১৯ জানুয়ারি রাতে গাজীপুরের বোটবাজারের একটি বাস থেকে হলি আর্টিজান হামলা মামলার চার্জশিটভুক্ত পলাতক আসামিকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।
সবুজবাগ থানায় গত এপ্রিল মাসে দায়ের করা ওই মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০১৮ সালের ৩ এপ্রিল র‌্যাব-৩ সবুজবাগ থানাধীন বাসাবো বালুর মাঠ এলাকায় একটি ব্যাগসহ রিফাত হায়াত স্বাধীন নামের একজনকে গ্রেপ্তার করে। ওই সময় তার সঙ্গে থাকা সংগঠনের ছদ্মনামীয় আবু রুহান, ডন ভাই, জীবন ইসলাম, আবু মুজাহির ও গ্রীনবার্ডসহ অজ্ঞাত ২/৩ জন পালিয়ে যায়। ওই সময় ব্যাগ হতে জঙ্গি তৎপরতার বিভিন্ন আলামত জব্দ করা হয়। ওই ঘটনায় ওয়ারেন্ট অফিসার মো. আবু বকর সিদ্দিকী একটি মামলা করেন। মামলায় মোট ৬ জন এজাহারনামীয় আসামি এবং ২/৩ জন অজ্ঞাত আসামি রয়েছে। যার মধ্যে মামুনুর রশীদ এজাহারনামীয় আসামি।
উলে­খ্য, হলি আর্টিজান মামলায় মামুনুর রশিদ চার্জশিটভুক্ত ৮ নং আসামি। মামলার অন্যান্য আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এ আসামির জড়িত থাকার বিষয়ে নাম প্রকাশ পাওয়ায় তাকে চার্জশিটভুক্ত করা হয়। মামলাটি বর্তমানে সাক্ষ্য গ্রহণের পর্যায়ে রয়েছে। এর মধ্যে মামলায় ১৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.