May 29, 2024
আঞ্চলিক

গাজীরহাটে চাচা-ভাতিজা হত্যার ঘটনায় নগরীতে মানববন্ধন

ফুলবাড়ীগেট প্রতিনিধি

খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার গাজীরহাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা টিপু সুলতান ও যুবলীগ নেতা হায়বাত শেখকে কুপিয়ে হত্যা করায় আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করেছে দিঘলিয়া উপজেলাবাসী।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় দিঘলিয়া উপজেলার সর্বস্তরের জনসাধারণ খুলনার পিকচার প্যালেস মোড়ে  মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে। এরপর হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে ফাঁসির দাবিতে বেলা ১২টায় খুলনা প্রেস ক্লাবে হুমায়ুন কবির বালু মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে ভুক্তভোগি পরিবার। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নিহত শেখ টিপু সুলতানের ভাতিজা ও নিহত হায়বাত শেখের বড় ভাই মোঃ আকবার শেখ।

২টি কর্মসূচীতে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা জানায়, দলে অনুপ্রবেশ কারীরা প্রকৃত আওয়ামী লীগ কর্মীদের পরিকল্পিত ভাবে খুন করে দলের নেতৃত্বে শুন্য করার পাঁয়তারা চালাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৬ সেপ্টেম্বর গাজীরহাট ইউনিয়ন আ’লীগের নেতা শেখ টিপু সুলতানকে এলাকার চিহ্নিত অস্ত্রধারী সšা¿সী লুৎফর শেখের নেতৃত্বে জাহিদ শেখ, সোহাগ শেখ ও জসিম সরদার সহ তাদের সহযোগী সন্ত্রাসীরা নির্মম ভাবে কুপিয়ে হত্যা করে। তাকে হত্যা করে চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা ক্ষ্যান্ত থাকেনি, টিপু সুলতান শেখের একটি পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন করে মৃত নিশ্চত ভেবে এবং উক্ত কাটা পা উচু করে উল্লাসের মাধ্যমে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

টিপু সুলতান হত্যাকান্ডের রক্তের দাগ শুকাতে না শুকাতেই টিপু সুলতানের মামলা পরিচালনাকারী নিহত টিপু সুলতানের ভাতিজা হায়বাত শেখকে গত ১৪ অক্টোবর নির্মম ভাবে কুপিয়ে হত্যা করে উক্ত সন্ত্রাসীরা। পুলিশ ২টি মামলায় ৪৬ জন আসামীদের মধ্যে মাত্র ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে। আটককৃত আসামীরা আদালতে ১৬৪ ধারা জবানবন্দিতে হত্যাকান্ডর সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। অদ্যবধি যে সকল আসামীরা গ্রেফতার হয়নি তারা মামলার বাদী ও পরিবারকে বিভিন্ন ভাবে মামলা তুলে নেয়ার হুমকি ও স্বাক্ষীদের ভয়ভিতী দেখাচ্ছে। অবিলম্বে সকল আসামীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানান।

মানববন্ধন কর্মসূচীতে সভাপতিত্ব করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদ শেখ, দিঘলিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড সাধারণ সম্পাদকের সন্তান ও খানজাহান আলী থানা যুগ্ম আহŸায়ক মোঃ মিজানুর রহমানের পরিচালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন গাজীর হাট ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক বিষ্ণুপদ সরকার, বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ হামিদ, মুক্তিযোদ্ধা কামরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর শেখ, সাবেক মেম্বর আনোয়ার হোসেন, আরিফ ইকবাল চৌধুরী, ইরান মেম্বর, জাকির মেম্বর, আলম মেম্বর, আনিস মেম্বর, হালিম মেম্বর, জিয়াউর রহমান, জি,এম আকরাম, হুমায়ন কবির, মোঃ ইব্রাহিম, মোঃ জিল্লুরসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *