খুলনায় ৩২টি গ্রেনেড নিষ্ক্রিয় করলো সেনাবাহিনী

দ: প্রতিবদক

খুলনার পাইকগাছা উপজেলার চিংড়ি ঘেরের মাটির নিচে পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া ৩২টি হ্যান্ড গ্রেনেড নিষ্ক্রিয় করেছে সেনাবাহিনীর বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট। রবিবার রাত সাড়ে ৯টা থেকে ১০টা ৪৮ মিনিট পর্যন্ত এই ৩২টি গ্রেনেড বিস্ফোরণ করা হয়। এ সময় গ্রেনেডের বিকট আওয়াজে স্থানীয় লস্কর, সোলাদানা, গড়ইখালী, পৌরসভা ও গদাইপুরসহ গোটা এলাকা প্রকম্পিত হয়। যশোর সেনানিবাসের জিওসি ৫৫ পদাতিক ডিভিশনের মেজর আশফাকের নেতৃত্বে বোমা বিশেষজ্ঞ টিম গ্রেনেডগুলো নিষ্ক্রিয় করে।

এর আগে রোববার রাতে পাইকগাছার চিংড়ি ঘেরে সেনাবাহিনীর পৌঁছায় বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট। তারা ওই এলাকা পর্যবেক্ষণ করেন এবং সেখানে পাওয়া ৩২টি হ্যান্ড গ্রেনেড পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন। এরপর তা ধ্বংস করেন। এ সময় পাইকগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এমদাদুল হক শেখ ও ওসি (তদন্ত) রহমত আলী উপস্থিত ছিলেন।

গতকাল সোমবার পাইকগাছা থানার উপপরিদর্শক লিটন বিশ্বাস বলেন, ‘যশোর বোমা বিশেষজ্ঞ টিম গ্রেনেডগুলো মাটির নিচে নিয়ে নিষ্ক্রিয় করেছে। এ সময় বিকট শব্দ হয়।’

বোমা বিশেষজ্ঞ মেজর আশফাক বলেন, ‘৩২টি গ্রেনেডই বেশ পুরোনো ও মরিচা পড়া ছিল। কিন্তু কার্যকর ছিল। বেশ শক্তিশালীও। এগুলো সবই বিদেশি। গ্রেনেডের সব ন্যাচার বিদ্যমান ছিল। ছয় সদস্যের বিশেষজ্ঞ দল নিরাপদ প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে গ্রেনেডগুলো নিষ্ক্রিয় করতে সক্ষম হয়েছে।’

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.