খুলনায় ১৫ দিনব্যাপী বৃক্ষরোপণ অভিযান ও মেলা শুরু

খুলনায় ১৫ দিনব্যাপী বিভাগীয় বৃক্ষরোপণ অভিযান ও বৃক্ষমেলা শুরু হয়েছে। শুক্রবার (২২ জুলাই) সকালে সার্কিট হাউস মাঠে এ মেলার উদ্বোধন করেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার।

বৃক্ষরোপণ অভিযান ও বৃক্ষমেলার এবারের প্রতিপাদ্য ‘বৃক্ষপ্রাণে প্রকৃতি-পরিবেশ, আগামী প্রজন্মের টেকসই বাংলাদেশ’।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপমন্ত্রী বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষরোপণের কোন বিকল্প নেই। জনগণের মধ্যে ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে পরিবেশ সংরক্ষণ ও বৃক্ষরোপণ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। আমরা কোন না কোন ভাবেই সবুজের ওপর নির্ভর করে বেঁচে আছি। অধিক পরিমাণে বৃক্ষরোপণ করে সব ধরণের প্রাণিকে বাঁচাতে হবে। এখন যে পরিমাণ ছাদ-বাগান করা হচ্ছে তা পরিবেশের জন্য একটি ভাল দিক।পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষ নিধন থেকে সকলকে বিরত থাকতে হবে।

তিনি বলেন, ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার গঠনের পর থেকে প্রকৃতি-পরিবেশসহ সকল কিছু রক্ষা করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সুন্দর একটি দেশ উপহার দিতে চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

খুলনার জেলা প্রশাসক মোঃ মনিরুজ্জামান তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন খুলনার অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোঃ শহিদুল ইসলাম, বন সংরক্ষক মিহির কুমার দো, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সরদার রকিবুল ইসলাম, জেলা পরিষদের প্রশাসক শেখ হারুনুর রশীদ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মোঃ হাফিজুর রহমান। স্বাগত জানান বিভাগীয় বন কর্মকর্তা ড. আবু নাসের মোহসিন হোসেন।

অনুষ্ঠানে নার্সারি মালিক সমিতির সভাপতি এসএম বদরুল আলম রয়েল বক্তৃতা করেন। খুলনা জেলা প্রশাসন ও সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগ যৌথভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

এর আগে উপমন্ত্রীর নেতৃত্বে নগরীর শহিদ হাদিস পার্ক থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি শুরু হয়ে সার্কিট হাউস মাঠে মেলা প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার জনগণ অংশ নেন।

মেলা প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। এবারের বৃক্ষমেলায় স্টল রয়েছে ৬০টি।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.