May 21, 2024
আঞ্চলিকলেটেস্ট

খুলনায় আ’লীগ প্রার্থীদের ‘গলার কাটা’ বিদ্রোহীরা

 

জয়নাল ফরাজী

খুলনার সাত উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীদের দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন আওয়ামী লীগেরই বিদ্রোহী প্রার্থীরা। ইতোমধ্যে বটিয়াঘাটা ও ফুলতলা উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রার্থী আশরাফুল আলম খান ও শেখ আকরাম হোসেন বিনাপ্রতিদ্ব›িদ্বতায় নির্বাচিত হয়েছেন। বাকি সাত উপজেলায় চতুর্থ ধাপে ৩১ মার্চ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

সূত্র জানায়, দাকোপ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আবুল হোসেন। এই উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন মুনসুর আলী খান।

ডুমুরিয়ায় উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন গুটুদিয়া ইউপি’র সদ্য বিদায়ী চেয়ারম্যান মোস্তফা সরোয়ার। এ উপজেলায় তার কঠিন প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়িয়েছেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী আব্দুল হাদি’র পুত্র গাজী এজাজ আহম্মেদ ও আওয়ামী লীগ নেতা শাহানওয়াজ হোসেন জোয়াদ্দার। স্বয়ং স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের একটি বড় অংশ বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন বলে জানা গেছে। ইতোমধ্যে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর (মোস্তফা ও এজাজ) মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে। গতকাল সোমবার খুলনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে স্থানীয় এমপির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরেছেন নৌকার প্রার্থী মোস্তফা সরোয়ার। যদি সংসদ সদস্য জানিয়েছেন, মোস্তফা সরোয়ার মনোনয়ন পাওয়ায় জনগণ আতংকিত।

পাইকগাছায় উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতা গাজী মোহাম্মদ আলী। এ উপজেলায় তাকে পড়তে হবে কঠিন লড়াইয়ের মুখে। বিশেষ করে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রশিদুজ্জামান মোড়ল ও সাবেক এমপিপুত্র শেখ মনিরুল ইসলাম এর সাথে তার ত্রিমুখী লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

কয়রায় উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জি এম মহসিন রেজা। এ উপজেলায় আ’লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে লড়ছেন বিদ্রোহী প্রার্থী এস এম শফিকুল ইসলাম ও আব্দুল­াহ আল মামুন। ইতোমধ্যে বিদ্রোহী প্রার্থী এস এম শফিকুল ইসলামের প্রচারণায় দেখা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদককে। এছাড়া ওই দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে।

রূপসায় উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন বাদশা। এই উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের মধ্যে শক্ত প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আলী আকবর। এছাড়া আওয়ামী লীগের ওলিয়ার রহমান মাস্টারও রয়েছেন বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে।

তেরখাদায় উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু। এই উপজেলায় জেলা আওয়ামী লীগের নেতা অ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান কালু বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন। এছাড়া আ’লীগ নেতা শেখ শহিদুল ইসলামও রয়েছেন ভোটের লড়াইয়ে।

দিঘলিয়ায় উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান খান নজরুল ইসলাম। তার দুই কঠিন প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়িয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতা শেখ মারুফুল ইসলাম ও মলি­ক মহিউদ্দিন। এই উপজেলায়ও ত্রিমুখী লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিনকে বলেন, ‘চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ দিয়েছে। এখানে স্থানীয় নেতাদের কিছু করণীয় নেই। আর নৌকার প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়া হলেও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন আয়োজনের কারণে চেয়ারম্যান পদ কেন্দ্র থেকে “ওপেন” রাখা হয়েছে। এখানে যে কেউ প্রার্থী হতে পারে। দবে তিনি দলের সমর্থন পাবেন না।’

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *