May 19, 2024
আঞ্চলিকলেটেস্ট

খুলনার ৮ উপজেলায় ভোট আজ

 

* কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ, যান চলাচল বন্ধ

 

দ: প্রতিবেদক

আজ রবিবার চতুর্থ ধাপে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই ধাপে খুলনার আটটি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন উপলক্ষে কড়া নিরাপত্তায় উপজেলার নির্বাচন কার্যালয় থেকে কেন্দ্রে কেন্দ্রে ব্যালট পেপারসহ সরঞ্জামাদি পাঠানো হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ১০টায় প্রিজাইডিং অফিসারের মাধ্যমে এসব সামগ্রী পাঠানো হয়। সরঞ্জামাদির মধ্যে রয়েছে ব্যালট পেপার, ব্যাগ, সিল, দড়ি প্রভৃতি। আজ সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে নির্বাচনী এলাকায়। এছাড়া নির্বাচনী এলাকাগুলোতে আজ সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

খুলনা জেলার ৯ উপজেলার মধ্যে ৮টিতে আজ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ২৭ মার্চ নৌকা প্রতীক বরাদ্দ নিয়ে দ্ব›েদ্ব খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাচন ১০ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। যার কারণে আজ ডুমুরিয়া উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে না।

জেলার ৮টি উপজেলার মধ্যে বটিয়াঘাটা ও ফুলতলা উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ও দাকোপে ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্ব›িদ্বতায় নির্বাচিত হয়েছে। এছাড়া ৮ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ২১ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪০জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩৫ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

এদিকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে খুলনার ৬৫ শতাংশ কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। তবে সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে কঠোর ব্যবস্থার কথা জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসন। ৮টি উপজেলায় মোট ভোটকেন্দ্র রয়েছে ৪৭৭টি। দূর্গম যোগাযোগ ব্যবস্থা, স্পর্শকাতর এলাকা ও দূরবর্তী স্থান বিবেচনায় এরমধ্যে ২৯৪টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ আর ১৮৩টি কেন্দ্রকে সাধারণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। যা মোট ভোট কেন্দ্রের প্রায় ৬৫ শতাংশ।

খুলনা জেলা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-ওয়াস) আব্দুর রশীদ বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠানে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে প্রয়োজনীয় কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি জানান, খুলনার ৮ উপজেলায় ২১ হাজার পুলিশ, ৪ হাজার ৬৯২ আনসার, ২৪ প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাবের ১৮টি প্রেটোল পার্টি ও ২০৭ জন কোস্টগার্ড দায়িত্ব পালন করছেন।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি)’র অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (সিটিএসবি) মনিরা সুলতানা জানান, কেএমপি’র আওতায় ৪৬টি ভোট কেন্দ্র রয়েছে। এর মধ্যে ৩১টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ এবং ১৫টি কেন্দ্র সাধারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

উলে­খ্য, গত উপজেলা নির্বাচনে খুলনার নয়টি উপজেলার মধ্যে ছয়টিতে চেয়ারম্যান পদে জয় পায় আওয়ামী লীগ। ডুমুরিয়া ও পাইকগাছায় বিএনপি এবং কয়রায় জামায়াত প্রার্থী নির্বাচিত হন। তবে এবার বিরোধী দল-মতের কোন প্রার্থীই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন না।

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *