খুলনার ৮টিসহ ১০৪ উপজেলায় ভোটগ্রহণ কাল, প্রস্তুতি সম্পন্ন

 

* ভোটের দিন উপজেলাগুলোতে সাধারণ ছুটি

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থধাপের ভোটের প্রচার শেষ গতকাল শুক্রবার মধ্যরাত ১২টায় শেষ হয়েছে। এ সময়ের পর আর কোনো প্রচার না চালানোর নির্দেশনা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এবারের ধাপে আগামীকাল রবিবার খুলনার ৮টিসহ দেশের ১০৪টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আইন অনুযায়ী, ভোটগ্রহণ শুরুর ৩২ ঘণ্টা আগে নির্বাচনী প্রচার বন্ধ করতে হয়। ভোটগ্রহণ শুরু হবে ৩১ মার্চ (রোববার) সকাল ৮টায়। সে অনুযায়ী, প্রচার বন্ধ করার নির্দেশনা দিয়েছে ইসি।

চতুর্থধাপে ১২২ উপজেলায় ভোটগ্রহণের তফসিল দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। এগুলোর মধ্যে খুলনার ডুমুরিয়া, ফেনীর ছাগলনাইয়া, ময়মনসিংহের ত্রিশাল ও কুমিল¬ার বড়ুরার নির্বাচন আদালতের আদেশে স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া এই ধাপে যুক্ত হয়েছে তৃতীয়ধাপের পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া ও নোয়াখালীর কবিরহাটের নির্বাচন। এছাড়া ১৫ উপজেলার সব পদে প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্ব›িদ্বতায় নির্বাচিত হয়েছে। তাই চতুর্থ ধাপে ভোটগ্রহণ হবে ১০৪টি উপজেলায়।

উপজেলাগুলো হলো-পটুয়াখালী জেলার সদর, দশমিনা, গলাচিপা, কলাপাড়া, মির্জাগঞ্জ, দুমকী ও বাউফল উপজেলা; ভোলা জেলার দৌলতখান, তজুমদ্দিন ও লালমোহন উপজেলা; বরগুনা জেলার সদর, আমতলী, বেতাগী, বামনা ও পাথরঘাটা উপজেলা; পিরোজপুর জেলার সদর, ইন্দুরকানী, কাউখালী, ভাণ্ডারিয়া, নেছারাবাদ ও নাজিরপুর উপজেলা।

যশোর জেলার সদর, বাঘারপাড়া, ঝিকরগাছা, চৌগাছা, অভয়নগর, মনিরামপুর ও কেশবপুর উপজেলা; খুলনা জেলার দিঘলিয়া, কয়রা, দাকোপ, পাইকগাছা, রূপসা, তেরখাদা, ফুলতলা ও বটিয়াঘাটা উপজেলা; বাগেরহাট জেলার সদর, মোংলা, মোরেলগঞ্জ, চিতলমারী, কচুয়া, রামপাল, ফকিরহাট, মোল¬াহাট ও শরণখোলা উপজেলা।

ময়মনসিংহ জেলার সদর, হালুয়াঘাট, ধোবাউড়া, ফুলপুর, ঈশ্বরগঞ্জ, ফুলবাড়ীয়া, ত্রিশাল, গৌরীপুর, নান্দাইল, মুক্তাগাছা ও ভালুকা উপজেলা; নরসিংদী জেলার সদর; মুন্সীগঞ্জ জেলার সদর, সিরাজদিখান, লৌহজং, শ্রীনগর, টঙ্গিবাড়ী ও গজারিয়া উপজেলা; নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার, সোনারগাঁও ও রূপগঞ্জ উপজেলা; ঢাকা জেলার ধামরাই, দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলা; টাঙ্গাইল জেলার সদর, ধনবাড়ী, মধুপুর, মির্জাপুর, দেলদুয়ার, নাগরপুর, ঘাটাইল, ভূঞাপুর, কালিহাতী, গোপালপুর, বাসাইল ও সখিপুর উপজেলা।

কুমিল¬া জেলার তিতাস, বরুড়া, চান্দিনা, মুরাদনগর, বুড়িচং, ব্রাহ্মণপাড়া, মেঘনা ও হোমনা উপজেলা; নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ, সেনবাগ, সোনাইমুড়ী, কবিরহাট, সুবর্ণচর ও চাটখিল উপজেলা; ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সদর, সরাইল, আখাউড়া, আশুগঞ্জ, নাসিরনগর ও নবীনগর উপজেলা; ফেনী জেলার সদর, ফুলগাজী, সোনাগাজী ও দাগণভূঁঞা উপজেলা; কক্সবাজার ও দিনাজপুর জেলার সদর; গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ; কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী এবং চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলা।

এ ধাপে চেয়ারম্যান পদে ৩৯ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২২ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৭ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্ব›িদ্বতায় নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩৫১ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫৩৩ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪০৬ জন প্রতিদ্ব›দ্বী প্রার্থী রয়েছেন। ৩১ মার্চ ভোটগ্রহণ হবে ৯ হাজার ৭৪০টি ভোটকেন্দ্রে। ২২ জেলার মোট ২ কোটি ৫৫ লাখ ৪০ হাজার ৭০৪ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাচ্ছেন।

ভোটের দিন নির্বাচনী এলাকায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এছাড়া শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিতে শুক্রবার মধ্যরাত ১২টা থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার জন্য মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ইসি। আর নির্বাচনী এলাকায় অন্য যন্ত্রচালিত যানবাহন বন্ধ থাকবে ৩০ মার্চ মধ্যরাত ১২টা থেকে ৩১ মার্চ মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত।

নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও শুক্রবার থেকেই মাঠে অবস্থান নিয়েছে। পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি ও আনসারসহ সব মিলিয়ে প্রায় দুই লাখ ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ জানিয়েছেন, সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে এমন ৫০টিরও বেশি উপজেলায় র‌্যাব ও বিজিবি অতিরিক্ত ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে। পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন পাঁচধাপে সম্পন্ন করছে ইসি। ১৮ জুন পঞ্চম ও শেষধাপের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *