খুলনার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সকল ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান

খুলনা জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের যৌথ মতবিনিময় সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, আওয়ামী লীগের শক্তি হলো তৃণমূল। তৃণমূল শক্তিশালী আছে বলেই আ’লীগ বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে বার বার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসে। সে জন্য মতভেদ ভুলে তৃণমূল পর্যায়ে সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করতে হবে। আ’লীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আর জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হওয়ায় খুলনাসহ সারাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে, গণতন্ত্রের ভীত মজবুত হয়েছে। জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনার এ উন্নয়ন ও গণতন্ত্রকে দীর্ঘস্থায়ী করতে তৃণমূলের সকল পর্যায়ে দলীয় প্রতিনিধি থাকা অত্যন্ত জরুরী, যা আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।
নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, অবহেলিত দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উন্নয়ন রূপকার বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাাসিনা। তাঁর নেতৃত্বে আ’লীগ সরকার খুলনায় শেখ হাসিনা মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, শিশু হাসপাতাল, আইটি পার্ক, ভৈরব নদীর ওপর সেতু প্রক্রিয়াধীন, খুলনা মোংলা রেল সংযোগসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম করেছে। তাই খুলনার উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে নির্দেশনা দিয়েছেন তা বাস্তবায়ন করাই আমাদের নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য। খুলনার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সকল ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে আ’লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে হবে।

গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় খুলনা ক্লাবে জেলা ও মহানগর আ’লীগের যৌথ মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মহানগর আ’লীগের সভাপতি ও সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। জেলা আ’লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ হারুনুর রশীদের সভাপতিত্বে সভায় সম্মানিত অতিথির বক্তৃতা করেন বঙ্গবন্ধু’র ভ্রাতুষ্পুত্র ও খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন আ’লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য এড. গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার, জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. সুজিত অধিকারী, মহানগর সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা, জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. সোহরাব আলী সানা, জাতীয় সংসদের হুইপ ও খুলনা-১ আসনের সংসদ সদস্য পঞ্চানন বিশ্বাস, খুলনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য নারায়ন চন্দ্র চন্দ, খুলনা-৬ আসনের সংসদ সদস্য মো. আকতারুজ্জামান বাবু, খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুস সালাম মুর্শেদী, নগর আ’লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক মেয়র কাজী আমিনুল হক, বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ্পুত্র বিশিষ্ট ব্যবসায়ী  ও সমাজ সেবক শেখ জালাল উদ্দিন রুবেল।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন আ’লীগ নেতা খান নজরুল ইসলাম, শেখ আবুল হোসেন, জে এম মহসিন রেজা, আনোয়ারুল ইকবাল মন্টু, শেখ আকরাম হোসেন, কামাল উদ্দিন বাদশা, এড. মোঃ সাইফুল ইসলাম, শেখ শহিদুল ইসলাম, শেখ মারুফুল ইসলাম, এজাজ আহমেদ, মনসুর আলী খান, কাউন্সিলর এস এম মোজাফফর রশিদী রেজা, এফ এম অহিদুজ্জামান, কামরুল হাসান টিপু, সেলিম জাহ্ঙ্গাীর, আবদুল­াহ আল মাহমুদ, মানস কুমার রায়, এস এম ফরিদ রানা।

মহানগর আ’লীগের দপ্তর সম্পাদক মোঃ মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ ও জেলার প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক জোবায়ের আহমেদ খান জবার সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন আ’লীগ নেতা এড. কাজী বাদশা মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. এম এম মুজিবর রহমান, বেগ লিয়াকত আলী, মলি­ক আবিদ হোসেন কবীর, এড. রবীন্দ্র নাথ মন্ডল, অধ্যক্ষ দেলওয়ারা বেগম, বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ শহিদুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন মিন্টু, বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্যামল সিংহ রায়, বি এম এ ছালাম, এড. আইয়ুব আলী শেখ, মোস্তফা কামাল খোকন, এড. নিমাই চন্দ্র রায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা নুর ইসলাম বন্দ, রফিকুর রহমান রিপন, সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, কামরুজ্জামান জামাল, এড. ফরিদ আহমেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, সরদার আবু সালেহ, শেখ মোঃ ফারুক আহমেদ, ইঞ্জিনিয়ার প্রেম কুমার মন্ডল, প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, এম এ রিয়াজ কচি, এড. নব কুমার চক্রবর্তী, কাউন্সিলর জেড এ মাহমুদ ডন, শ্রীমন্ত অধিকারী রাহুল, প্যানেল মেয়র আমিনুল ইসলাম মুন্না, শেখ মোঃ রকিবুল ইসলাম লাবু, হালিমা ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী কেরামত আলী, কাজী শামিম আহসান, শেখ রাশেদুল ইসলাম, মোজাফফর মোল­া, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোখলেসুর রহমান বাবলু, অধ্যাপক ডাঃ মোহাঃ শেখ শহীদ উল­াহ, মোঃ মফিদুল ইসলাম টুটুল, খায়রুল আলম, সায়েদুজ্জামান সম্রাট, ইঞ্জিনিয়ার জি এম মাহবুবুল আলম, ননী গোপাল মন্ডল, শেখ মনিরুল ইসলাম, আশরাফুল আলম খান, অধ্যাপক রুনু ইকবাল বিথার, অসিত বরণ বিশ্বাস, অধ্যক্ষ ফ ম সালাম, সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাস, জাহাঙ্গীর হোসেন মুকুল, কাউন্সিলর ফকির সাইফুল ইসলাম, ফারহানা হালিম, মোঃ তরিকুল আলম খান, কাজী জাহিদ হোসেন, শিউলি সারওয়ার, ফারজানা নিশি, কাউন্সিলর শেখ হাফিজুর রহমান, অমিয় অধিকারী, আনিসুর রহমান মুক্ত, কাউন্সিলর মো. গাউসুল আজম, মো. আজগর বিশ্বাস তারা, রবার্ট নিক্সন ঘোষ, নান্টু রায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলর মুন্সি আব্দুল ওয়াদুদ, মোঃ জামিল খান, প্যানেল মেয়র এড. মেমরী সুফিয়া রহমান শুনু, কাউন্সিলর আবুল কালাম আজাদ বিকু, মোহাম্মদ আলী, মাহফুজুর রহমান লিটন, ইমাম হাসান চৌধুরী ময়না, মোঃ সাইফুল ইসলাম, এইচ এম ডালিম, মাহমুদা বেগম, কণিকা সাহা, আমেনা হালিম বেবী, সাহিদা বেগম, মনিরা আক্তার, পারভিন আক্তার, রহিমা আক্তার হেনা ও রেকসোনা কালাম লিলি, মোল­া আকরাম হোসেন, সরদার আবুল কাশেম ডাবলু, কে এম আলমগীর হোসেন, বিনয় কৃষ্ণ রায়, মৃনাল হাজরা, শাহনেওয়াজ জোয়ারদার, নিশিত রঞ্জনসহ জেলা ও মহানগর শাখার সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানবৃন্দ, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্যবৃন্দ, পৌর মেয়র ও কাউন্সিলরবৃন্দ।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *