খুবি ক্যাম্পাসে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষায় শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

দ: প্রতিবেদক

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে গতকাল রবিবার বেলা ১২টায় ক্যাম্পাসের হাদী চত্ত¡রে সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মোঃ সারওয়ার জাহানের সভাপতিত্বে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষার প্রত্যয়ে সমিতির পক্ষ থেকে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপুল সংখ্যক শিক্ষক মানববন্ধনে অংশ নেন। মানববন্ধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেন সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মোঃ সারওয়ার জাহান এবং সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর মোঃ শরীফ হাসান লিমন।

সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে সমিতির সভাপতি বলেন, শিক্ষার্থীদের অন্দোলনে একজন শিক্ষকের প্রকাশ্য বক্তব্য ও কয়েকজন শিক্ষকের প্রকাশ্য ইন্ধন দুঃখজনক, নজীরবিহীন। ছাত্রদের অধ্যাদেশ পরিবর্তনের দাবি মেনে নিলে লেজুড়বৃত্তিক রাজনীতির অনুপ্রবেশ ঘটতে পারে, ক্যাম্পাসে লেজুড়বৃত্তিক ছাত্ররাজনীতি আমরা চাই না, এটা কোনোক্রমেই মেনে নেওয়া য়ায় না। ছাত্রদের যৌক্তিক দাবি যথাযথ প্রক্রিয়ায় সমাধান সম্ভব, ডিন কমিটি সে লক্ষ্যে কাজ করছে ,তাই বলে ক্যাম্পাসে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি কাম্য নয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শুরু থেকে গড়ে ওঠা স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য ও ভাবমূর্তি কোনোভাবেই বিনষ্ট হতে দেওয়া যায় না। কারও বিরুদ্ধে কোনো অনিয়ম বা অন্য কোনো অভিযোগ থাকলে তা যথাযথ প্রক্রিয়ায় ও বিধিবিধান অনুসরণ করেই উপস্থাপন করা যায়, প্রতিকার চাওয়া যায়। কেউ উদ্দেশ্যমুলকভাবে একাডেমিক পরিবেশ বিনষ্ট করতে চাইলে বা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধিবিধানের পরিপন্থী কাজ করলে সে ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ নিয়মানুয়ায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করলে প্রয়োজনে আমরা সহযোগিতা করবো।

তিনি আরও বলেন, উপাচার্য দীর্ঘদিন ধরে এ বিশ্ববিদ্যায়ে আছেন, আমরা তাঁর সাথে বিভিন্ন ফোরামে কাজ করছি, ফেসবুকে তাঁর বিরুদ্ধে যেভাবে উল্লেখ করা হয়েছে তিনি এমন মানসিকতা লালন করেন না বলেই আমাদের বিশ্বাস।

অপরদিকে সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও ছাত্র বিষয়ক পরিচালক প্রফেসর মোঃ শরীফ হাসান লিমন এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের সমস্যা অগ্রাধিকার দিয়ে বিবেচনায় নিয়েই কাজ করি। সেভাবেই আমরা তাদের উত্থাপিত কতিপয় দাবি নিয়ে কাজ করছি। কিন্তু হঠাৎ করেই তারা ক্যাম্পাসে অস্থিতিশীলতার চেষ্টা করে। একজন শিক্ষক শিক্ষার্থীদের সাথে সংহতি প্রকাশ করে বক্তৃতা দেন, এটা দুঃখজনক। আমরা সব সময়ই বিশ্ববিদ্যালয়ের সুষ্ঠু শিক্ষার পরিবেশ বজায় রাখার পক্ষে। উদ্দেশ্যমূলকভাবে কেউ স্থিতিশীল পরিবেশ নষ্ট করতে চাইলে আমরা তার নিন্দা জানাই।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.