খুবিতে নবাগত শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন দেশে অর্থনৈতিক গতিশীলতা তৈরি হয়েছে : ড. আতিউর

দ: প্রতিবেদক
বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেছেন, আমাদের গ্রাজুয়েটদের কেবলমাত্র একজন কেরানি হওয়ার স্বপ্ন দেখলে চলবে না। তাদেরকে বড় স্বপ্ন দেখতে হবে। উদ্যোক্তা হতে হবে এবং নতুন নতুন উদ্ভাবন করতে হবে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষে ভর্তিকৃত নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে ওরিয়েন্টেশন বক্তা হিসেবে বক্তৃতাকালে এ কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, দেশে এখন রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও অর্থনৈতিক গতিশীলতা তৈরি হয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে তিনি স্বপ্নের ফেরিওয়ালা হিসেবে উল্লেখ করে বলেন তিনি শুধু একটি স্বাধীন দেশ ও জাতির স্বপ্নই দেখেননি তিনি ক্ষুধামুক্ত, শোষণমুক্ত এবং সমৃদ্ধ দেশের স্বপ্নও দেখেছিলেন এবং সে লক্ষ্যেই কাজ শুরু করে ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেখা সেই স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার পথেই এগিয়ে যাচ্ছে। এখন আমাদের অর্থনীতিতে মুল্যস্ফীতি কমছে। রিজার্ভ উল্লেখযোগ্য পর্যায়ে বেড়েছে। মাথাপিছু আয় বেড়েছে। জীবনমান বেড়েছে। এখন ভোগের বৈষম্য হ্রাস করতে হবে। আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থার ক্রুটিগুলো সারিয়ে তুলে শিক্ষাকে প্রাণবন্ত করতে হবে। অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জনে সৃষ্ট প্রবল সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে শিক্ষা ক্ষেত্রে উদ্ভাবনা ও সৃজনশীলতার উপর জোর দিতে হবে।
অনুষ্ঠানে উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামানের সভাপতিত্বে বিশেষ বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. প্রাণ গোপাল দত্ত। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, সমাজ বিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. শাহনেওয়াজ নাজিমুদ্দিন আহমেদ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, ছাত্রবিষয়ক পরিচালক প্রফেসর মোঃ শরীফ হাসান লিমন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আয়োজক কমিটির আহবায়ক চারুকলা স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ মনিরুল ইসলাম। উপাচার্য প্রথাগতভাবে নবীন শিক্ষার্থীদের শপথ বাক্য পাঠ করান এবং স্কুলসমূহের ডিনবৃন্দ ও ইনস্টিটিউটের পরিচালক স্ব স্ব স্কুল ও ইনস্টিটিউটের নবাগত শিক্ষার্থীদের পরিচয় করিয়ে দেন।
বিশেষ বক্তা ডাঃ প্রাণ গোপাল দত্ত বলেন, শিক্ষা ছাড়া জীবন অচল। জীবনের সমস্ত পরতে পরতে রয়েছে শিক্ষা। তিনি বলেন শিক্ষা নিতে যেয়ে অথবা শিক্ষা নিয়ে আমরা অনেকেই অনেক পেশায় শপথ গ্রহণ করে থাকি। কিন্তু শপথ রক্ষা করে চলে কয়জন। আসলে নৈতিকতার জায়গাটাই আসল। তাঁর বক্তব্যে নীতি-নৈতিকতা, উদারতা এবং জীবনে কোনো ক্ষেত্রে নিজেকে খাটো করে না দেখে বরং অদম্য সাহস, উদ্দীপনা ও দৃঢ়মনোবল নিয়ে সমস্ত প্রতিক‚লতাকে মোকাবেলা করার জন্য শিক্ষার্থীদের পরামর্শ দেন।
এছাড়া বিকেল সাড়ে তিনটায় অর্থনীতি ডিসিপ্লিনের কুয়েস (খুলনা ইউনিভার্সিটি ইকোনোমিক্স সোসাইটি) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মাইক্রোইকোনোমিক্স ট্রান্সফরমেশন অব বাংলাদেশ শীর্ষক অর্থনীতির ওপর একক বক্তব্য রাখেন ড. আতিউর রহমান। পরে তিনি শিক্ষার্থীদের প্রশ্নের উত্তর দেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অর্থনীতি ডিসিপ্লিনের প্রধান প্রফেসর ড. শাহনেওয়াজ নাজিমুদ্দিন আহমেদ।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.