খাশোগি হত্যার মূলহোতা যুবরাজ সালমান : জাতিসংঘ

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
জাতিসংঘের নেতৃত্বাধীন একটি তদন্ত দল মনে করছে, সৌদি ভিন্ন মতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের প্রধান সন্দেহভাজন ব্যক্তি হচ্ছেন দেশটির যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমান। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানের অন্যতম উপদেষ্টা ইয়াসিন আকতাই জাতিসংঘের ওই তদন্ত দলের সঙ্গে আলাপের পর এ তথ্য জানিয়েছেন। তুরস্কের ইস্তাম্বুলস্থ সৌদি কনস্যুলেটে গত বছরের অক্টোবরে নির্মমভাবে নিহত হন খাশোগি। সে হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে তদন্ত চালাতে গিয়ে জাতিসংঘের দলটি আকতাই’র সঙ্গে তার দপ্তরে সাক্ষাৎ করেন।
জাতিসংঘের বিচার-বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধি অ্যাগনেস ক্যালামার্ডের নেতৃত্বাধীন জাতিসংঘের তদন্ত দলটি গত সোমবার খাশোগি হত্যাকাণ্ডের তদন্ত চালানোর জন্য তুরস্কে প্রবেশ করে। ক্যালামার্ড এরইমধ্যে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী, বিচারমন্ত্রী ও অ্যাটর্নি জেনারেলের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন।
জাতিসংঘের তদন্তকারী দলের সঙ্গে সাক্ষাতের পর প্রেসিডেন্ট এরদোগানের উপদেষ্টা আকতাই সাংবাদিকদের জানান, তদন্ত দলটি মনে করছে, সৌদি যুবরাজের নির্দেশেই জামাল খাশোগিকে হত্যা করা হয়েছে। দলের প্রধান ক্যালামার্ড খাশোগির বাগদত্তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন এবং হত্যাকাণ্ডের সময়কার কথোপকথনের রেকর্ড শুনেছেন। অবশ্য ক্যালামার্ড ইস্তাম্বুলস্থ সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশ করতে চাইলেও তাকে সে অনুমতি দেয়া হয়নি।
গত ৩ অক্টোবর সৌদি কনস্যুলেটে ব্যক্তিগত কাগজ সংগ্রহ করতে গিয়ে সৌদি আরবের একদল নিরাপত্তা কর্মকর্তার হাতে নিহত হন খাশোগি। সৌদি সরকার প্রথমে বিষয়টি বেমালুম অস্বীকার করলেও পরে খাশোগিকে হত্যা করে তার লাশ ধ্বংস করে ফেলার কথা স্বীকার করে। তবে রিয়াদ এ ঘটনায় যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানের জড়িত থাকার কথা এখনো অস্বীকার করে যাচ্ছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.