খালেদার মুক্তি আন্দোলন বলে-কয়ে আসবে না : আমীর খসরু

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে’ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য জনগণের অংশগ্রহণেই ‘সময়মতো’ আন্দোলন হবে বলে আশাবাদী বিএনপি নেতা আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

তার মতে, বাংলাদেশের নাগরিক যে যেখানেই থাকেন না কেন সবারই এখন গন্তব্যস্থল একটিই- ‘গণতন্ত্র, মৌলিক অধিকার-ভোটাধিকার, আইনের শাসন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা এবং বাকস্বাধীনতা পুনরুদ্ধার করা’। বিএনপিও সেই আন্দোলন-সংগ্রামের পথে এগোচ্ছে বলে মন্তব্য করেন দলটির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য।

খালেদা জিয়াকে ‘গণতন্ত্রের মাতা’ অভিহিত করে আমীর খসরু বলেন, তাকে জেলে রেখে যদি কেউ মনে করে সেই পথ রুদ্ধ করে দেবে- তারা বোকার রাজ্যে বসবাস করছে। তিনি বলেন, দেশনেত্রীকে মুক্ত করতে হবে এবং সেটার আন্দোলনের ধরন কী হবে, সেটার কর্মসূচি কী হবে তা সময় বলে দেবে।

আন্দোলন ‘বলে-কয়ে’ হয় না মন্তব্য করে এই বিএনপি নেতা বলেন, আমাদের মধ্যে আবার অনেকে আছেন, আমরা বলি, রোজার পরে আন্দোলন হবে, ঈদের পরে আন্দোলন হবে, ওমুকের এটার পরে এটা হবে। ‘পানি যে রকম তার গতি বেছে নেয়, আন্দোলনও তার নিজ গতি বেছে নেয়। বাংলাদেশের মানুষের প্রত্যাশা পূরণে দেশনেত্রীর মুক্তির জন্য যে আন্দোলন সৃষ্টি হবে, সেই আন্দোলন বলে-কয়ে আসে না। জিয়া পরিষদের ৩১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের তৃতীয় তলায় আবদুস সালাম হলে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

সংগঠনের চেয়ারম্যান কবীর মুরাদের সভাপতিত্বে ও জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব আবদুল­াহিল মাসুদের পরিচালনায় আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য অধ্যাপক আবদুল কুদ্দুস, জিয়া পরিষদের অধ্যাপক এমতাজ হোসেন, অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, প্রকৌশলী রুহুল আলম, রবিউল ইসলাম, আজিজুল ইসলাম প্রমুখ।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *