কয়রায় সংবাদ সম্মেলন সুন্দরবন নার্সিং হোমে উন্নত চিকিৎসা চললেও অপপ্রচারে ব্যস্ত একটি মহল

 

কয়রা প্রতিনিধি

উপজেলা সদরের সুন্দরবন নার্সিং হোমে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা রোগীরা স্বল্প ব্যয়ে চিকিৎসা সেবা পেয়ে স্বস্তিবোধ করছে। আর এ সুযোগ না দিতে একটি মহল নানা ধরনের ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেছে ক্লিনিকের পরিচালক কামরুজ্জামান।

গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় কয়রা উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য তিনি জানান, খুলনার সিভিল সার্জনের দপ্তর থেকে চিকিৎসার মান উন্নয়নের শর্ত পূরণ করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের নতুন লাইসেন্স নবায়নের সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন শেষে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সনদ, ইউপি’র ট্রেড লাইসেন্স ও স্থানীয় সরকারের অনাপত্তি পত্র, করদাতার সনদ সহ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর নির্ধারিত ৩৬ হাজার ৫ শ ১৩ টাকা ভ্যাট সহ নবায়ন ফি সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জমা দেখিয়ে সুন্দরবন নার্সিংহোম সম্পূর্ণ বৈধ ভাবে স্থানীয় রোগিদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, পরিচ্ছন্ন পরিবেশে ক্লিনিকের চিকিৎসা পেয়ে সাধারণ রোগীরা বেশ সন্তুষ্ট। তারপরেও একটি মহল সুন্দরবন নার্সিং হোমের চিকিৎসা নিয়ে কিছু অসত্য তথ্য পরিবেশন করে সাধারন মানুষের মাঝে বিভ্রান্ত করছে। যা খুবই দুঃখজনক। কয়রা সদর থেকে কয়রা সরকারি হাসপাতাল ১৫ কিঃ মিঃ ও খুলনা জেলা শহর ১শ কিঃ মিঃ দূর হওয়ায় গরীব অসহায় রোগীরা সেখানে না যেতে পারায় স্বল্প খরচে এখানে চিকিৎসা সেবা নিতে পারে।

স্থানীয় এলাকাবাসীর দাবি, এ ধরণের অপপ্রচার বন্ধ করে কয়রায় বেসরকারি ক্লিনিকগুলো চালু রাখলে অসহায় রোগীরা ভাল সেবা পেয়ে অতি স্বল্প ব্যায়ে চিকিৎসা সেবা  গ্রহন করতে পারবে। এ লক্ষেই সুন্দরবন নার্সিং হোমে কাজ করে যাচ্ছে। তাই সংবাদ সম্মেলনে মাধ্যমে এ ধরনের অপপ্রচার থেকে বিরত থাকার জন্য ঐ মহলটির প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.