ক্ষুদে ডাক্তার বিষয়ে এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত

তথ্য বিবরণী

ফাইলেরিয়াসিস নির্মূল, কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও ক্ষুদে ডাক্তার কার্যক্রম আওতায় আগামী ২৫ থেকে ৩০ জানুয়ারি তারিখ দেশের সকল প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্ষুদে ডাক্তারদের দিয়ে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা শুরু হবে। শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকেই ক্ষুদে ডাক্তার নির্বাচিত করা হবে।

কর্মসূচিটি গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে খুলনার স্কুল হেলথ ক্লিনিক সম্মেলনকক্ষে সিভিল সার্জন অফিসের আয়োজনে জেলা পর্যায়ের এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন খুলনার সিভিল সার্জন ডাঃ সুজাত আহমেদ।

সিভিল সার্জন বলেন, সরকার শিশুদের স্বাস্থ্যের উন্নয়নে কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। কৃমি মূলত পরজীবী প্রাণী। কৃমি শিশুদের মেধার বিকাশ ক্ষতিগ্রস্থ করে এবং শিশুরা মারাত্মক অপুষ্টিতে ভোগে। এর প্রতিরোধ করতে হলে শিশুদের কৃমি নাশক ট্যাবলেট খাওয়াতে হবে।

সভায় জানানো হয়, ২৫ থেকে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত খুলনা জেলার নয়টি উপজেলা ও দুইটি পৌরসভাসহ এক হাজার ছয়শ ৭১টি প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৫ থেকে ১২ বছরের দুই লাখ ৩০ হাজার ৫৮ শিক্ষার্থীকে এবং চারশ ৭২টি মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১২ থেকে ১৬ বছরের এক লাখ ৬৩ হাজার নয়শ ৬৪ শিক্ষার্থীকে ক্ষুদে ডাক্তার দিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার মাধ্যমে বয়স অনুপাতে তাদের সঠিক ওজন, উচ্চতাসহ দৃষ্টিশক্তির ত্রæটি নির্ণয় করা হবে।

এ্যাডভোকেসি সভায় সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মাহাবুবুর রহমান, উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, উপজেলা মাধ্যমিক ও প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন ডাঃ সত্যজিৎ মন্ডল।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.