কাশ্মীর হামলা: পাকিস্তানকে ‘একঘরে করার’ হুমকি ভারতের

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
ভারতশাসিত জম্মু-কাশ্মীরে বৃহস্পতিবারের ভয়াবহ গাড়িবোমা হামলার ঘটনায় পাকিস্তানকে দায়ী করে দেশটিকে আন্তর্জাতিক মহল থেকে সবদিক দিয়ে ‘পুরোপুরি একঘরে’ করে ফেলার হুমকি দিয়েছে নয়া দিলি­।
শুক্রবার ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুন জেটলি বলেছেন, তার দেশ পাকিস্তানকে একঘরে করতে কূটনীতিকভাবে যা যা করা দরকার তার সবই করবে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাসভবনে উচ্চপর্যায়ের এক বৈঠকের পর একথা বলেন জেটলি।
কয়েক দশকের মধ্যে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গিরা যত হামলা চালিয়েছে বৃহস্পতিবারের হামলাটিই তার মধ্যে সবচেয়ে প্রাণঘাতী। এদিন জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) গাড়িবহরে বিস্ফোরক বোঝাই একটি গাড়ি হামলায় ৪৬ জন আধাসামরিক সেনা নিহত হয়।
হামলার সময় পুলওয়ামা জেলার শ্রীনগর-অনন্তনাগ মহাসড়কের ওপর দিয়ে জম্মু থেকে শ্রীনগরে যাচ্ছিল সিআরপিএফ’ এর গাড়িবহরটি। জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহম্মদ হামলার দায় স্বীকার করেছে।
পাকিস্তান তার দেশে ক্রিয়াশীল এ জঙ্গিগোষ্ঠীকে নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ বলে দীর্ঘদিন ধরেই দাবি করে আসছে নয়া দিলি­। জইশ-ই-মোহম্মদের ওপর আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞাও চেয়ে আসছে তারা। জঙ্গিগোষ্ঠীটির নেতা মাসুদ আজহারকে সন্ত্রাসীর তালিকায় রাখতেও ভারত অনেক দিন ধরেই জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদকে চাপ দিয়ে আসছে।
নয়া দিলি­র এ ধরনের চেষ্টায় সব সময়ই বাধা দিয়ে আসছে চীন। নিরাপত্তা পরিষদে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যে কোনো ধরনের নিষেধাজ্ঞার চেষ্টাতেই সাধারণত বেইজিং ভিটো ক্ষমতা প্রয়োগ করে বলে জানিয়েছে বিবিসি।
শুক্রবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে অরুন জেটলি জানান, ভারত কাশ্মীরে ভয়াবহ এ হামলার জন্য পাকিস্তানকে জবাবহিদি করাতে বদ্ধপরিকর। ১৯৯৬ সালে দেশটিকে দেওয়া ‘মোস্ট ফেভারড নেশনের’ তকমাও তুলে নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।
ইসলামাবাদ কাশ্মীরে হামলার তীব্র নিন্দা ও উদ্বেগ জানিয়েছে এবং হামলা নিয়ে তাদের ওপর আসা সব ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করেছে।
এর আগে ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে উরির সেনা ছাউনিতে জঙ্গি হামলায় নিহত হয়েছিল ১৯ সেনাকর্মী। কিন্তু এবারের এ হামলা উরির ভয়াবহতাকেও ছাপিয়ে গেছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এ হামলার পেছনে জড়িতদের ‘চরম মূল্য’ দিতে হবে বলে হুঁশিয়ার করেছেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.