কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক পদে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
বোন প্রিয়াঙ্কাকে কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক করে লোকসভা নির্বাচনের প্রচারের শুরুতেই বড় চমক নিয়ে হাজির হয়েছেন ভারতের বিরোধীদলীয় নেতা রাহুল গান্ধী। গতকাল বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভদ্রর অল ইন্ডিয়া কংগ্রেস কমিটির (এআইসিসি) সাধারণ সম্পাদক পদে নিয়োগ পাওয়ার কথা জানিয়েছে ভারতের গণমাধ্যম।
৪৭ বছর বয়সী প্রিয়াঙ্কাকে এর আগেও রাজনীতির ময়দানে দেখে গেছে। কোনো পদে না থেকেও ইন্দিরা গান্ধীর এ নাতনি মা সোনিয়া ও ভাই রাহুলের প্রচারে চষে বেড়িয়েছেন উত্তরপ্রদেশের রায়বেরিলি ও আমেথির কংগ্রেস দুর্গগুলোতে।
ভারতজুড়ে কংগ্রেসের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা দীর্ঘদিন ধরেই তাকে দলের নেতৃস্থানীয় পদে দেখতে চাইলেও এতদিন এ বিষয়ে অনীহাই দেখা গেছে গান্ধী পরিবারের। অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজনীতিতে যোগ দিলেন প্রিয়াঙ্কা।
পর্যবেক্ষকরা বলছেন, লোকসভা ভোটের আগে বিজেপি হটাতে একেবারে মোক্ষম সময়েই ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ ছাড়ল কংগ্রেস। কংগ্রেসের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে উত্তর প্রদেশের পূর্বাঞ্চলেরও দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে প্রিয়াঙ্কাকে, পশ্চিমাঞ্চল দেখভালের দায়িত্ব পেয়েছেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। সমর্থকদের এই দুইজনের ওপর আস্থা রাখারও অনুরোধ জানিয়েছেন রাহুল।
প্রিয়ঙ্কা-জ্যোতিরাদিত্যর উপর আস্থা রাখুন, ওরা ভাল ফল করে দেখাবে, বলেছেন তিনি। সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই প্রিয়াঙ্কা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নেতাকর্মীদের প্রশংসায় ভাসছেন। অন্যান্য রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতারাও অভিনন্দন জানিয়েছেন।
নেতাকর্মীরা বলছেন, ২০১৪ সালের নির্বাচন পরবর্তী বাজে সময় উৎরে বিভিন্ন রাজ্যে ভাল ফল করছে কংগ্রেস। এমন সময়ে প্রিয়াঙ্কার আবির্ভাব দলের পালে হাওয়া দেবে, জোরাল করবে বিজেপিবিরোধী ঐক্যকেও। সমর্থকরা তার মধ্যে ইন্দিরা গান্ধীর প্রতিচ্ছবিও দেখতে পান। দাদির মতো পরীক্ষিত না হলেও প্রিয়াঙ্কা রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও দূরদর্শিতা দিয়ে কংগ্রেসকে আবারও ভারতের সবচেয়ে শক্তিশালী সংগঠনে পরিণত করবেন বলেও আশা তাদের।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.