May 27, 2024
আঞ্চলিক

উপকুলীয় জনপদ কয়রার বতুলবাজার কমিউনিটি ক্লিনিকে দরিদ্র মানুষ পাচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা

কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধি

দেশের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে স্বাস্থ্যসেবার সুযোগ গ্রামীণ মানুষের জীবনে এনেছে স্বস্তি। প্রথমদিকে সচেতনতার অভাবে কমিউনিটি ক্লিনিকে সেবা  গ্রহিতাদের ভিড় না থাকলেও এখন ক্লিনিকগুলোতে রোগীর ভিড় ক্রমশ বাড়ছে। আর এ সকল ক্লিনিকের মাধ্যমে গ্রামাঞ্চলের মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে উপকুলীয় জনপদ কয়রার উত্তর বেদকাশি বতুলবাজার কমিউনিটি ক্লিনিকের অধিক সেবা মানুষের কাছে গ্রহন যোগ্যাতা পেয়েছে। সরকারের পাশাপাশি এই ক্লিনিকটি জনসাধারন দেখা শুনার দায়িত্ব গ্রহন করে চালাচ্ছে এর স্বাস্থ্য সেবা।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, উপজেলার অবেহেলিত জনপদ বতুলবাজার গ্রামে অবস্থিত ক্লিনিকটি সবুজ গাছগাছালি মধ্যে দাড়িয়ে আছে। পরিবেশ আর পারিপাশ্বিক অবস্থা খুবই ভাল। স্বাস্থ্য সেবায় সব সময় প্রস্তুত সিএইচসিপি। সাধারন মানুষ আসলেই নিমিষেয় দেওয়া হয় স্বাস্থ্য সেবা। যে কারনে প্রতিনিয়ত রোগীর ভিড় লেগেই আছে।  ক্লিনিকের পরিচালনা কমিটির সভাপতি ইউপি সদস্য আবু হাসান বলেন, এখানে ৩০ প্রকার ওষুধ বিনামূল্যে বিতরণের পাশাপাশি স্বাস্থ্য, পরিবার-পরিকল্পনা ও পুষ্টি বিষয়ক পরামর্শ দেয়া হয়। বাড়ির কাছের মানসম্মত স্বাস্থ্যসেবার কারণে বড় ধরনের অসুখ ছাড়া উপজেলা ও জেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যাওয়া কমিয়ে দিয়েছে অবহেলিত এ জনপদের মানুষেরা। বতুলবাজার কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি উম্মেহানী বলেন, এখানে সার্বিক প্রজনন স্বাস্থ্য পরিচর্যার আওতায় গর্ভবর্তী মহিলাদের প্রসব পূর্ব প্রতিষেধক টিকাদান এবং প্রসব পরবর্তী নবজাতকের সেবা দেয়া হয়। তিনি জানান এই কমিউনিটি ক্লিনিকে এ পর্যন্ত অনেক নবজাতক প্রসব করানো হয়েছে। তা ছাড়া অন্যান্য রোগের জন্য সব সময় চিকিৎসা দেওয়ার পর বিনামুল্যো ওষুধ দেওয়া হয়। সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য সুলতানা মিলি বলেন, এই ক্লিনিকে সব চিকিৎসা হয়। ওষুধ কিনতে হয় না। ক্লিনিক থেকে বিনামূল্যে ওষুধ দেয়া হয়। আগে শহরে গিয়ে চিকিৎসা নিতে হতো। সময়লাগতো বেশী, টাকাও খরচ হতো। কিন্তু এখন আর বাহিরে যেতে হয় না। সাধারণ রোগের চিকিৎসা তারা এখান থেকেই পাচ্ছেন।

স্বাস্থ্য পরিদর্শক  রুহিত বরন রায় বলেন, বতুলবাজার কমিউনিটি ক্লিনিকে সময়মত প্রতিষেধক টিকাদান য²া, ডিপথেরিয়া, হুপিং কাশি, পোলিও, ধনুষ্টংকার, হাম, হেপাটাইটিস-বি, নিউমোনিয়া সহ শিশু ও কিশোর কিশোরীদের জন্য প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য সেবা দেয়া হয়। জনগণের জন্য বিশেষ করে মহিলা ও শিশুদের অপুষ্টি দূরীকরণের জন্য ফলপ্রসূ ব্যবস্থা গ্রহণ ও সেবা প্রদান করা হয়। ম্যালেরিয়া, য²া, কুষ্ঠ, কালা-জ্বর, ডায়রিয়াসহ অন্যান্য সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা এবং সেগুলোর সীমিত চিকিৎসা সুবিধা রয়েছে। সাধারণ জখম, জ্বর, ব্যথা, কাটা,পোড়া, দংশন, বিষক্রিয়া হাঁপানী চর্মরোগ, ক্রিমি এবং চোখ, দাঁত ও কানের সাধারণ রোগের ক্ষেত্রে লক্ষণ ভিত্তিক প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়। অস্থায়ী পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি সংক্রান্ত বিভিন্ন উপকরণ, যেমন-কনডম, পিল, ইসিপি ইত্যাদি সার্বক্ষণিক সরবরাহ ও বিতরণ নিশ্চিত করা হয়। সব চেয়ে মজার বিষয় সদ্য বিবাহিত ও অন্তসত্বা মহিলাদের নিবন্ধিকরণ ও সম্ভাব্য প্রসাবের তারিখ সংরক্ষণ করতে হয় কমিউনিটি ক্লিনিকে। মহিলা ও কিশোর-কিশোরীদের রক্তস্বল্পতা সনাক্ত এবং প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান করা হয় বতুলবাজার ক্লিনিকে।

উত্তর বেদকাশি ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সরদার নুরুল ইসলাম বলেন, বতুলবাজার কমিউনিটি ক্লিনিকের চিকিৎসার মান খুবই ভাল। তিনি নিজ উদ্যোগে বরাদ্ধ দিয়ে ক্লিনিকের উন্নয়ন কাজ করে যাচ্ছে। চমৎকার পরিবেশ দেখে তিনি পর্যায়ক্রমে অধিক বরাদ্ধ দিয়ে দৃষ্টিনন্দন করার অশা ব্যক্ত করেন। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সুজাত আহমেদ বলেন, বতুলবাজার কমিউনিটি ক্লিনিকের কারণে এই এলাকার দরিদ্র মানুষ আজ সঠিক ভাবে স্বাস্থ্য সেবা পাচ্ছে। উক্ত কমিউনিটি ক্লিনিক রোগীর সংখ্যা আগের চেয়ে অনেক রেড়েছে। বর্তমানে কয়রা উপজেলার মধ্যে বতুলবাজার কমিউনিটি ক্লিনিককে মডেল ক্লিনিক হিসাবে ঘোষনা করা হয়েছে। ইতিমধ্যে  কেয়ার বাংলাদেশে থেকে ক্লিনিকের উন্নয়নকল্পে ৩০ হাজার টাকা বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *