ইসরায়েলি হামলায় একের পর এক ইসলামিক জিহাদ নেতা নিহত

ফিলিস্তিনের গাজা এলাকায় ইসরায়েলের এক বিমান হামলায় ইসলামিক জিহাদের আরেকজন ঊর্ধ্বতন নেতা নিহত হয়েছেন। দুই পক্ষের লড়াই এখন আরো তীব্র আকার নিচ্ছে। নিহত আইয়াদ আল-হাসানি হচ্ছেন ফিলিস্তিনি ইসলামিক জিহাদের (পিআইজে) ষষ্ঠ জ্যেষ্ঠ নেতা, যারা গত কয়েক দিনে ইসরায়েলি হামলায় নিহত হয়েছেন।

ইসরায়েল বলছে, গত মঙ্গলবার আল-হাসানির পূর্বসূরি নেতা নিহত হওয়ার পর থেকে তিনিই এ সংগঠনের কার্যক্রম পরিচালনা করছিলেন।

বিভিন্ন সূত্রে বলা হচ্ছে, আল-হাসানি পিআইজের সশস্ত্র শাখার উপপ্রধান ছিলেন এবং এ লড়াইয়ে ইসরায়েল যাদেরকে আক্রমণের লক্ষ্য বানিয়েছে তাদের মধ্যে সবচেয়ে ঊর্ধ্বতন নেতা। মঙ্গলবার নিহত পিআইজে নেতা খলিল আল-বাহতিনির স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন তিনি।

ইসরায়েলের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, পিআইজের জ্যেষ্ঠ নেতাদের ওপর আক্রমণের মধ্য দিয়ে তারা হামাসকেও সতর্ক করে দিচ্ছেন, যারা গাজা নিয়ন্ত্রণকারী হলেও এখন পর্যন্ত এ সংঘাতে জড়ায়নি বলে মনে করা হচ্ছে।

শুক্রবার চালানো ওই হামলায় আরো এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে, আর তার আগে গাজা থেকে ইসরায়েলের ভেতরে অনেকগুলো রকেট ছোড়া হয়, যার কয়েকটি জেরুজালেমে কাছাকাছি পৌঁছে যায়।

এ পর্যন্ত ৩৩ জন ফিলিস্তিনি নিহত
গত মঙ্গলবার ভোররাত থেকে ইসরায়েল গাজার ওপর একের পর এক বিমান হামলা চালাতে শুরু করে। এতে এ পর্যন্ত কমপক্ষে ৩৩ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। এর মধ্যে তিনজন ইসলামিক জিহাদ সংগঠনের শীর্ষস্থানীয় নেতা বলে জানা গেছে। তবে নিহতদের প্রায় অর্ধেকই বেসামরিক ফিলিস্তিনি।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, এসব বিমান হামলায় ১৪৭ জন আহত হয়েছে।

অন্যদিকে ইসরায়েলের একটি অ্যাম্বুল্যান্স সার্ভিস জানাচ্ছে, ফিলিস্তিনি রকেট হামলায় একজন ইসরায়েলি বেসামরিক লোক নিহত এবং পাঁচজন আহত হয়েছে।

শুক্রবারের ইসরায়েলি বিমান হামলার আগের ১২ ঘণ্টার পরিস্থিতি অপেক্ষাকৃত শান্তই ছিল। ইসলামিক জিহাদ বলেছে, ‘জেরুজালেম লক্ষ্য করে রকেট হামলা একটি বার্তা এবং এর লক্ষ্য সবারই বুঝে নেওয়া উচিত।’

যুদ্ধবিরতির চেষ্টায় মিসরে আলোচনা
ইসরায়েল বলছে, তারা গাজায় পিআইজের ২৫৪টি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে, আর ফিলিস্তিনিরা গাজা থেকে ইসরায়েলের দিকে কমপক্ষে ৯৭৩টি রকেট ও মর্টার নিক্ষেপ করেছে।

এসব ঘটনার পর খুব শিগগিরই কোনো যুদ্ধবিরতি হবে—এমন সম্ভাবনা কম বলে বিবিসির সংবাদদাতারা জানাচ্ছেন, যদিও এ লক্ষ্যে মিসরে আলোচনা চলছে।

মিসরে চলমান যুদ্ধবিরতির আলোচনা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল একজন ফিলিস্তিনি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মিসরীয় কর্মকর্তারা শনিবার সন্ধ্যায় যুদ্ধবিরতির একটি নতুন প্রস্তাব উত্থাপন করেছেন, যা এখন বিবেচনা করে দেখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, এ ব্যাপারে ইসরায়েলের প্রতিক্রিয়া জানার জন্যও কায়রো অপেক্ষা করছে।

সূত্র : বিবিসি

শেয়ার করুন: