ইউপি নির্বাচনে সৎ ও যোগ্য প্রার্থীদের প্রাধান্য দেয়া হবে : সিটি মেয়র

রামপালে আ’লীগের কর্মী সভা অনুষ্ঠিত

রামপাল (বাগেরহাট) প্রতিনিধি
খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাবেক মন্ত্রী তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, এক সময় রামপাল-মোংলার বেশিরভাগ চিংড়ি ঘের খুলনা- বাগেরহাটের এক শ্রেনীর প্রভাবশালী মহল জোর করে হারির টাকা না দিয়ে ঘের করতো। ১৯৯৬ সালে আমি রামপাল-মোংলা থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে জমি যার ঘের তার এই নিয়ম চালু করায় মানুষের মধ্যে একটা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফিরে আসে। বাংলাদেশ-ভারত তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের আগে সুন্দরবনের ক্ষতি হবে এমন ধুয়া তুলে দেশি বিদেশি একটা মহল বিরোধীতা করেছিল। প্রধানমন্ত্রী সেই সব মহলের কথায় কোন কর্ণপাত না করে সুন্দরবনের ক্ষতি না করে বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। এরফলে এই এলাকার জমির মূল্য বেড়ে গেছে কয়েকগুন। ভবিষ্যতে কর্মসংস্থান হবে অনেকের।
তিনি আরও বলেন, আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আগে রামপাল উপজেলার সব ইউনিয়নে সাংগঠনিক ভাবে দলকে শক্তিশালী করা হবে। সেই সাথে যারা সৎ ও যোগ্য তাদেরকে প্রার্থী নির্বাচনে প্রাধান্য দেয়া হবে। পকেট থেকে কোন নেতা দেয়া হবেনা।
তিনি মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে তিনটায় রামপাল উপজেলার হুড়কা ইউনিয়নের গোনা বেলাই মন্দির মাঠে হুড়কা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাঃ মোল্লা আঃ রউফ, উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ মোয়াজ্জেম হোসেন, বিধান চন্দ্র মন্ডল, মোঃ হামিম নূরী, হাওলাদার হাফিজুর রহমান, সিরাজুল আজম দারা, শ্যমল দেওয়ান, নূরুল হক লিপন, হোসনেয়ারা মিলি মনির আহমেদ প্রিন্স, সরদার বোরহান উদ্দিন, শেখ হাফিজুর রহমান, বিধান মন্ডল, ননী বালা বিশ্বাস, পবিত্র পাড়ে, সুজন মল্লিক, গায়ত্রী বিশ্বাস।
এর আগে গত ২২ ফেব্রুয়ারী রাতে মেয়র রাজনগর ইউনিয়নের কালেখারবেড় গ্রামে নিরাপদ গোস্বামির বাড়িতে যান। এময় তিনি তার সাথে কুশল বিনিময় করেন। উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ মোয়াজ্জেম হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল হক লিপন ও ইউপি চেয়ারম্যান সরদার আব্দুল হান্নান ডাবলু উপস্থিত ছিলেন।

দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিন/ এম জে এফ

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *