February 25, 2024
আঞ্চলিক

ইউপি চেয়ারম্যান দীন ইসলাম রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার

মুক্তির দাবিতে স্মারকলিপি ও সংবাদ সম্মেলন

 

দ: প্রতিবেদক

খুলনার তেরখাদা উপজেলার ৩নং ছাগলাদাহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান এস এম দীন ইসলামকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে হত্যা মামলায় জড়ানো এবং তার বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদে এক সংবাদ সম্মেলন গতকাল রবিবার বেলা ১২টা খুলনা প্রেসক্লাবের হুমায়ুন কবির বালু মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে খুলনা শহীদ হাদিস পার্ক থেকে একটি মিছিল জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হয়ে প্রেসক্লাবের সামনে এসে মানববন্ধন করে এলাকাবাসী। সংবাদ সম্মেলন শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রেরণ করেন নেতৃবৃন্দ।

সংবাদ সম্মেলনে ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক খান সেলিম আহমেদ স্বাক্ষরিত লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান এফ এম ওহিদুজ্জামান।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, গত ২০ আগস্ট রাতে তেরখাদা উপজেলার ৩নং ছাগলাদাহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বার বার নির্বাচিত জনপ্রিয় ইউপি চেয়ারম্যান এস এম দীন ইসলামকে খুলনা জেলা ডিবি পুলিশ তেরখাদার আলোচিত নাঈম হত্যা মামলায় আটক করে। তাকে আটক করায় এলাকায় প্রতিবাদের ঝড় উঠলেও হত্যাকারীদের পৃষ্ঠপোষকরা নানা রকম ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, ভিকটিম পরিবার চেয়ারম্যান দীন ইসলামের সাথে রাজনৈতিকভাবে সংশ্লিষ্ট ছিলেন। চেয়ারম্যানের রাজনৈতিক সকল কর্মকান্ডে এবং তার নির্বাচনী কর্মকান্ডে পিরু পরিবার রয়েছে শক্তিশালী হাতিয়ার হিসেবে। পিরু পরিবারের সাথে চেয়ারম্যানের কোন জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ কশ্চিনকালেও ছিলোনা। বরং তাদের সাথে দীন ইসলামের ঘনিষ্টতা ও হৃদ্যতা রয়েছে দীর্ঘকাল ধরে। তার ছেলে খুন হওয়া এবং পিরু আহত হওয়ায় সব থেকে বেশি ক্ষতির শিকার হয়েছেন চেয়ারম্যান দীন ইসলাম। বরং প্রকৃত হত্যাকারী যাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে তাদের সাথে জমিজমা সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধ রয়েছে। খুনী চক্র কখনো বা কোন দিন চেয়ারম্যান দীন ইসলামের লোক ছিলোনা। ছিলোনা তার রাজনৈতিক বা সামাজিক কোন কর্মকান্ডের সাথে সম্পৃক্ত।

চেয়ারম্যান দীন ইসলাম আটক হওয়ার পর এই খুনীদের পৃষ্ঠপোষকতাকারীরা সুযোগ বুঝে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারে লিপ্ত হয়েছে। এর আগেও এই চক্র এই প্রেসক্লাবে তার বিরুদ্ধে কিছু মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করে। এলাকার বিতর্কিত লোকজন ও বিএনপি-জামায়াতের নেতা-কর্মীদের নিয়ে দীন ইসলামের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন ও মিছিল করার পাশাপাশি বিভিন্ন স্থানে দরখাস্ত চালাচালি করছে। এর সাথে রয়েছে ছাগলাদাহ ইউনিয়নের প্রাক্তন চেয়ারম্যান নাছির উদ্দীন। যার সাথে চেয়ারম্যান দীন ইসলামের দীর্ঘদিনের নির্বাচনী বিরোধ রয়েছে।

দীন ইসলাম এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত রেখেছেন। কখনো কোন অপরাজনীতির সাথে জড়াননি তিনি। জড়াননি কোন দুর্নীতির সাথে। কারো সাথে কখনো খারাপ ব্যবহার বা কাউকে কোনদিন কটু কথা পর্যন্ত বলেননি। সব সময় ইউনিয়নবাসীর উপকারে এগিয়ে গেছেন। অথচ আজ তাকে হত্যাকান্ডে অর্থ যোগানদাতা ও হুকুমদাতা হিসেবে আসামী করা হয়েছে। যা গভীর ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছুই না। চেয়ারম্যান দীন ইসলামকে ওই মামলা থেকে অবিলম্বে অব্যাহতি দেওয়ার প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনাসহ আরো সুষ্ঠু তদন্তের জন্য মামলাটি পিবিআইতে হস্তান্তরের দাবি জানানো হয়।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শহিদুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান শারাফাত হোসেন মুক্তি, মহিলা ভাইস চেয়াম্যান নাজমা আইয়ুব, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান কেএম আলমগীর হোসেন, সদর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আরিফুজ্জামান অরুণ, ছাগলাদাহ ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক খান সেলিম আহমেদ, আ’লীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান উকিল উদ্দীন লস্করসহ উপজেলা ও ইউনিয়ন আ’লীগের শতাধীক নেতৃবৃন্দসহ সকল ইউপি মেম্বরবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *